facebook sharing button
messenger sharing button
whatsapp sharing button
twitter sharing button
linkedin sharing button
print sharing button

জন্মদিনে নেতাকর্মীদের ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদের এমপি। শুক্রবার সকাল থেকেই জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা ফুল, মিষ্টি ও কেক নিয়ে পার্টি চেয়ারম্যানের জন্মদিন উদযাপন করতে চেয়ারম্যানের বনানীর কার্যালয়ে জড়ো হন। প্রতিটি অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকে আলাদা কেক নিয়ে আসেন নেতারা।

জন্মদিন উপলক্ষ্যে অনেকে ব্যক্তিগতভাবেও কেক ও ফুল নিয়ে আসেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে। উৎসবমুখর এক মিলনমেলায় ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময় করে প্রিয় নেতার সুস্বাস্থ্য এবং দীর্ঘায়ু কামনা করেন তারা।

এ সময় জিএম কাদের বলেন, আমরা দেশের মানুষের মুক্তির জন্য রাজনীতি করছি। আমরা দেশের মানুষকে মুক্তি দিতে চাই। দেশের মানুষ বৈষম্য ও দুঃশাসন থেকে মুক্তি চায়। দীর্ঘকাল দেশের সাধারণ মানুষ বৈষম্যের শিকার হয়েছেন। আমরা শোষণ ও বৈষম্যহীন দেশ গড়তেই রাজনীতি করছি। এই রাজনীতি নিয়ে আমরা মাঠে থাকব।

তিনি বলেন, দেশের মানুষের স্বার্থে আপসের সুযোগ নেই। আমরা কোনো দলের জন্য কাজ করছি না। মানুষের স্বার্থে কাজ করছি। দেশের মানুষ যদি দেখে আমরা তাদের স্বার্থে কাজ করছি, তারা অবশ্যই আমাদের সমর্থন দেবে। জনগণের ভবিষ্যতের সঙ্গেই আমাদের ভবিষ্যৎ। দেশ স্বাভাবিক গতিতে এগিয়ে যাবে। দেশের মানুষের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই আমরা রাজনীতি করছি। তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি একত্রিত আছে, ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে যাবে। সব পরিস্থিতিতে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

জিএম কাদের বলেন, এখন দেশের মানুষের সঙ্গে রাজনৈতিকভাবে বৈষম্য সৃষ্টি করা হচ্ছে। যারা দল করে তাদের অর্থ উপার্জনের ব্যবস্থা করে দেওয়া হচ্ছে। সরকারি দলের উপজেলা পর্যায়ের নেতারা হাজার কোটি টাকার মালিক হয়ে গেছেন। তাদের দেশে টাকা রাখার জায়গা নেই, তারা বিদেশে টাকা পাচার করছে। সাধারণ মানুষের ওপর অত্যাচার করছে, তাদের চাঁদাবাজি থেকে ভিক্ষুকও রেহাই পায় না। দেশে আইনের শাসন নেই, দেশের মানুষের ধারণা আইন নিজের গতিতে চলতে পারছে না। ভালো মানুষ সমাজে টিকতে পারছেন না। ভালো মানুষেরা সন্তানদের বিদেশ পাঠিয়ে দিতে চেষ্টা করছেন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আমরা সঠিকভাবে ব্যবহার করতে পারছি না। বৈষম্যহীন ও ন্যায়বিচার ভিত্তিক একটি সমাজ গঠন হয়নি।

কেক কাটার আগে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান জিএম কাদের তার প্রেস সচিব খন্দকার দেলোয়ার জালালী রচিত ‘BLEEDING RAKHINE’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মো. মুজিবুল হক চুন্নু এমপি বলেন, কোনো ষড়যন্ত্রের কাছে মাথানত করবে না জাতীয় পার্টি। তিনি বলেন, দেশের মানুষ জিএম কাদেরকে বিশ্বাস করে। দেশের মানুষ তাকিয়ে আছে তার দিকে।

জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, পার্টি চেয়ারম্যান দলের নেতাকর্মীদের জন্য শীতল ছায়া। দলের নেতাকর্মীরা চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আছেন। নির্বাচন ঘনিয়ে আসছে। এর মধ্যেই জাতীয় পার্টিকে আরও শক্তিশালী করতে হবে। জিএম কাদেরের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি অভিষ্ঠ লক্ষ্যে এগিয়ে যাবে।

জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান ও জাতীয় মহিলা পার্টির সভাপতি অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি বলেন, দেশের মানুষ জিএম কাদেরের দিকে তাকিয়ে আছে। জাতীয় পার্টির দিকে তাকিয়ে আছে। আমরা ঐক্যবদ্ধ আছি। জিএম কাদেরের নির্দেশনায় দেশের মানুষের কল্যাণে জাতীয় পার্টির রাজনীতি এগিয়ে নেব। তিনি আরও বলেন, মানুষ পরিবর্তন চায়। একটি অর্থবহ পরিবর্তনের জন্য মানুষ উন্মুখ হয়ে আছে। জাতীয় পার্টিই সেই অর্থবহ পরিবর্তন এনে দিতে পারে।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা ও জাতীয় সাংস্কৃতিক পার্টির সভাপতি শেরিফা কাদের এমপি বলেন, দেশ ও মানুষের জন্য জাতীয় পার্টির রাজনীতি। মানুষের কল্যাণের জন্য জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান রাজনীতি করছেন। তাই দেশবাসীর কাছে জিএম কাদেরের সুস্থতা ও দীর্ঘায়ুর জন্য দোয়া কামনা করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য ফখরুল ইমাম এমপি, এসএম ফয়সল চিশতী, মীর আব্দুস সবুর আসুদ, রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, নাজমা আখতার এমপি, লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি, মোস্তফা আল মাহমুদ।

ফুলেল শুভেচ্ছা জানান- জাতীয় পার্টির বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের মধ্যে জাতীয় যুবসংহতি, জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টি, জাতীয় মহিলা পার্টি, জাতীয় সাংস্কৃতিক পার্টি, জাতীয় মটর শ্রমিক পার্টি, জাতীয় ছাত্রসমাজ, জাতীয় হকার্স পার্টি, জাতীয় শ্রমিক পার্টি।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.