Sunday April11,2021

প্রায় দুই দশক আগে শরীয়তপুরে আওয়ামী লীগ নেতা হাবিবুর রহমান ও তার ভাই মনির হোসেনকে হত্যার ঘটনায় করা মামলায় ৬ জনকে ফাঁসি ও ৪ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়ে রায় ঘোষণা করেছেন আদালত।

রবিবার (২১ মার্চ) অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. শফিক হোসাইন আলোচিত এ হত্যা মাশলার রায় ঘোষণা করেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত ৬ আসামি হলেন- শহীদ কোতোয়াল, শহীদ তালুকদার, শাহীন কোতোয়াল, শফিক কোতেয়াল, মজিবুর রহমান ও সোলেমান সর্দার।

যাবজ্জীবনপ্রাপ্তরা হলেন- বাবুল তালুকদার, ডাবলু তালকুদার, বাবুল খান ও টোকাই রশিদ। পাশাপাশি তাদের ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে, অনাদায়ে আরও ৬ মাস করে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

মামলায় ৫৩ আসামির মধ্যে ৩ জনকে দুই বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন বিচারক। তারা হলেন- মণ্টু তালুকদার, আসলাম সর্দার ও জাকির হোসেন মঞ্জুর। অপরাধে সংশ্লিষ্টতা প্রমাণিত না হওয়ায় রায়ে জীবিত আসামি ৩৭ জনকে খালাস দেয়া হয়েছে।

শরীয়তপুরের সাবেক সাংসদ বিএনপি নেতা কে এম হেমায়েত উল্লাহ আওরঙ্গসহ তিন আসামি বিচার চলাকালেই মারা যান।

অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের উত্তেজনাপূর্ণ সময়ে ২০০১ সালের ৫ অক্টোবর শরীয়তপুরের জেলা জজ আদালতের সাবেক পিপি হাবীবুর রহমান এবং তার ভাই মনির হোসেনকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

হাবীবুর রহমান ছিলেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এবং জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। তার ভাই মনির হোসেন ছিলেন পৌরসভা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক।

এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় হাবীবুর রহমানের স্ত্রী জিন্নাত রহমান বাদী হয়ে সাবেক সাংসদ আওরঙ্গসহ ৫৫ জনকে আসামি করে এ হত্যা মামলা দয়ের করেন।