Tuesday April20,2021

প্রেসক্লাবের সামনে ছাত্রদল ও পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়েছে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

রবিবার(২৮ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ সংঘর্ষ হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানায়, রোববার বেলা ১১টায় প্রেসক্লাবের সামনে ছাত্রদলের প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করার জন্য নেতা-কর্মীরা জড়ো হতে থাকেন। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামসহ সিনিয়র নেতারা এসেও হাজির হন।

অনুমতি না থাকায় সমাবেশ করতে নিষেধ করা হয় পুলিশের পক্ষ থেকে। এসময় উভয়পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা ও কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা পুলিশকে লক্ষ‌্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকেন। পুলিশ লাঠিচার্জ করলে উভয় পক্ষের মধ্যে শুরু হয় সংঘর্ষ। এক পর্যায়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে।

রমনা জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) সাজ্জাদ হোসেন বলেন, প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ করার অনুমতি তারা নেয়নি। এ কারণে সমারেশ করতে বারণ করা হলেও তারা না শুনে পুলিশের ওপর হামলা করে। এতে প্রায় ১০ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

প্রায় ২০ থেকে ২৫ মিনিট উভয় গ্রুপের সংঘর্ষ চলাকালীন প্রেসক্লাব, কদম ফোয়ারা হাইকোর্টের সামনেসহ আশেপাশের এলাকায় রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। সাধারণ মানুষ আতঙ্কিত হয়ে ছোটাছুটি করতে থাকে। পুরো এলাকার দোকানপাটও বন্ধ করে দেওয়া হয়। দুপুর পৌনে ১২ টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তবে এখনো পর্যন্ত এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিএনপির পক্ষ থেকে কোনো বক্তব্য দেওয়া হয়নি।