Wednesday April14,2021

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায় এক কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থককে দালাল বলার জেরে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। এতে দুজন আহত হয়েছেন। তবে স্বাভাবিক রয়েছে ভোটগ্রহণ।

উপজেলার কাশিপুর এলাকায় আজ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীর জানান, ‌পানির বোতল প্রতীকের কাউন্সিলর প্রার্থী আরিফুল ইসলামের এক সমর্থককে অন্য এক প্রার্থীর সমর্থক দালাল বলেন। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হন। কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে তাদের হাতাহাতি হয়। পরে তা উভয়পক্ষে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ায় রূপ নেয়। বিজিবি সদস্যরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এ বিষয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, কেন্দ্রে উত্তেজনা দেখা দিয়েছিল। এখন পরিস্থিতি শান্ত।

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ ও মহেশপুর পৌরসভা, শৈলকুপা উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচন, শৈলকূপা পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড হাবিবপুর কাউন্সিলর পদে উপ-নির্বাচনে সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়। একটানা চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

এ দুটি পৌরসভায় আওয়ামী লীগ-বিএনপিসহ মেয়র পদে ৮ জন প্রার্থী ও শৈলকুপা উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে ৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। অপরদিকে শৈলকূপা পৌরসভার ৮নং হাবিবপুর ওয়ার্ডে একজন কাউন্সিলর প্রার্থী নিহত হন। সেকারনে সেখানে একই সাথে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। কাউন্সিলর পদে ৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ঝিনাইদহ জেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নি অফিসার মো. রোকনুজ্জামান জানান, নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু শান্তিপুর্ণ এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বিপুল পরিমান পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি ম্যাজিস্ট্র্রেটের নেতৃত্বে কাজ করে যাচ্ছে।

মহেশপুর পৌরসভার ২২ হাজার ৪৫০ জন, কালীগঞ্জ পৌরসভায় ৪০ হাজার ৫৭৭ জন ও শৈলকুপা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ২ লাখ ৮৮ হাজার ২৫৪ জন ভোটার রয়েছেন।