Sunday February28,2021

সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেয়া ঈমানি দায়িত্ব বলে মন্তব্য করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। তিনি বলেন, এই জালেম সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেয়া ঈমানি দায়িত্বের মধ্যে পড়েছে। গুন্ডা, হুন্ডা দিয়ে ভোট এখন আর নেই। এখন পুলিশ প্রশাসন নিজেরাই গুন্ডা।

বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেশের পত্রিকা এবং টেলিভিশন এর গলায় চেপে ধরে তাদের কথা বলতে দিচ্ছে না। এই সরকারের একজন এমপি মানিলন্ডারিং করেছে, মানব পাচার করে বিদেশের মাটিতে ধরা পড়েছে। কোনও ব্যবস্থা নিয়েছে? প্রধানমন্ত্রীর অভিনয় দেখে মাঝে মাঝে মনে হয়, তিনি কেন রাজনীতি করেন? অভিনয় করলে আরও ভালো করতেন।

মান্না বলেন, আপনারাই (আওয়ামী লীগ) স্বাধীনতার পরে তিয়াত্তর থেকে ভোট ডাকাতি শুরু করেছেন। এখন প্রশ্ন হচ্ছে এরা যাবে কিভাবে। ভোটের দিকে তাকিয়ে থেকে লাভ নেই। সারা পৃথিবীতে এই ধরনের স্বৈরশাসনের পতন হয়েছে আন্দোলনের মাধ্যমে। আপনাদেরও পতন ঘটাতে হবে। আমি নিজেও শান্ত লোক কিন্তু এই সরকারের জন্য শান্ত থাকার কোনও উপায় নেই।

তিনি বলেন, এখন আমাদের মূলত একটাই দাবি- হাসিনা সরকারের পতন এবং নতুন করে নির্বাচন দিতে হবে। এই লক্ষ্যে আপনারা যে যেখান থেকে দাঁড়াবেন, আপনাদের পাশে আমরা থাকবো।

মান্না বলেন, এই সরকারের মৃত্যু ঘণ্টা বেজে গেছে। এরা যতো চুরি-ডাকাতি করেছে, সেগুলো ফেরত দিতে হবে। যতো অত্যাচার করেছে, সবকিছুর বিচার হবে।

মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর) এর চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল হায়দার, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদ, বিকল্পধারা বাংলাদেশের চেয়ারম্যান প্রফেসর নুরুল আমিন বেপারী, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি এম আবদুল্লাহ, খেলাফতে ইসলামী বাংলাদেশের মহাসচিব মাওলানা ফজলুল রহমান ও জাতীয় সংহতি মঞ্চের সদস্য সচিব অধ্যাপক মো. সিদ্দিকুর রহমান প্রমুখ।