Tuesday January26,2021

বিয়ে কিংবা বিবাহবার্ষিকীর নিমন্ত্রণে যাবেন। সব ঠিকঠাক। কিন্তু উপহার কি দিবেন? কেননা এ যে কেবল উপহার নয়, আর্শীবাদ। শুভ কামনার বস্তুগত রূপ। আর তাই সাধ ও সাধ্যের মাঝে সমন্বয় করে আপনজনের বিয়েতে মনমত একটা উপহার দেবার চেষ্টা সবাই করে থাকেন। আগে বিয়েতে সোনার গহনা, শাড়ি, কাঠের ফার্নিচার, কাঁসার তৈজসপত্র ইত্যাদি দেবার প্রচলন বেশি ছিল। তবে দিন বদলেছে। আর তার সাথে মিলিয়ে বদলেছে উপহারের রকমফের। উপহার দিতে গেলেই সাধ আর সাধ্যের চিরায়ত দ্বন্দ্ব ফিরে আসে বারবার। আর মনের মধ্যে হাজারো সংশয়- বাজেটের মধ্যে ভালো দেখে একটা উপহার পাওয়া যাবে কিনা, উপহারটা খুব সাদামাটা হয়ে যাচ্ছে কিনা, পছন্দ করবে তো, সন্মান থাকবে তো, ইত্যাদি আরো কত কিছু! বিয়েতে নববিবাহিত দম্পতিকে কিছু না কিছুতো উপহার দিতেই হবে। তবে নতুন দম্পতিকে এমন কিছু দেওয়া উচিত যেটা কিনা দুজনেরই কাজে লাগে। উপহার এর সাথে মিশে থাকে আবেগ ও আন্তরিকতা। তাই উপহার কি দেয়া হল সেটা বিবেচ্য বিষয়। বন্ধু বা আত্মীয় বা সহকর্মী, যারই বিয়ে হোক, উপহার হতে পারে কয়েক প্রস্থের। বিয়ের নিমন্ত্রণ থাকলে উপহার দেয়া নিয়ে যেমন চিন্তা তেমনি নিজের বিয়ে হলে উপহার পাওয়া নিয়েও চিন্তায় থাকতে হয়। একই উপহারের একাধিক কপি পেলে সেগুলো নিয়ে কি করা যায় তা নিয়ে ভাবনায় পরে যেতে হয়। মানুষ খুশি হয়ে, ভালোবেসে যদি কাউকে কিছু সম্প্রদান করে সেটাকে বলে উপহার। তার মানে উপহার আসলে শর্তহীন। বিনিময়ে আন্তরিকতা ও ভালবাসা ছাড়া আর কিছু আশা করাই ঠিক না। এবং উপহার আসলে আন্তরিকতা, শ্রদ্ধা কিংবা ভালবাসা প্রকাশ করারই একটি মাধ্যম। উপহার এর ধরণ বুঝে উপহার প্রদানকারী ব্যক্তির আর্থিক সামর্থ্য ও সামাজিক অবস্থান বিচার করার মানসিক অবস্থা স্বাভাবিক নয়। সামাজিক বিকলাঙ্গ পরিস্থিতির কারণে মানুষের মনে এই জটিলতা বা বিচারবোধ তৈরি হয় বলে মনে করেন সমাজবিজ্ঞানীরা। উপহার কি হবে তা ঠিক করতে গিয়ে এবং প্রচলিত উপহার সমগ্রের ধরণ আসলে আমাদের উপহারের মূল সংজ্ঞাকেই রীতিমত ভুলিয়ে দিয়েছে। আমি মনে করি উপহার হিসেবে নগদ অর্থ প্রদান করা। উপহার হিসেবে নগদ অর্থ যে কতটা উপকারী ও মাহাত্যপূর্ন তা গভীরভাবে ভাবলে অবাক হয়ে যাবেন।  ▪️নগদ অর্থ উপহার হিসেবে দারুণ। কেননা, নব দম্পতিরা সেই অর্থে নিজেদের সংসারের যেকোনো প্রয়োজন বা কেনাকাটা করতে পারবেন। ▪️নিজেদের পছন্দ অনুযায়ী খরচ করতে পারবেন। এতে কি উপহার কিনবেন, উপহারদাতাকে সেই দুশ্চিন্তায় পরতে হবেনা ▪️নগদ অর্থ পুরষ্কার হিসেবে দিলে উপহারের পুনরাবৃত্তির কোন অপশন নেই। ফলে এটা উপহারদাতা ও গ্রহীতা উভয়ের জন্য ঝামেলাহীন ও নিরাপদ। ▪️এমনকি ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকেও নগদ অর্থ উপহার হিসেবে উত্তম। ইসলামে বিয়েসহ যেকোনো অনুষ্ঠানে অভ্যাগত অতিথিদের সালাম করে পাওয়া অর্থকে সালামী বলা হয়। হাদিস শরিফে আছে, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, তোমরা হাদিয়া বা উপহার দাও, তোমাদের মধ্যে প্রীতির বন্ধন দৃঢ় হবে। (তিরমিজি)। উপহার এর সাথে মিশে থাকে আবেগ ও আন্তরিকতা। তাই উপহার কি দেয়া হল তার থেকে বিবেচ্য বিষয় পাওয়া আশীর্বাদ, দোয়া ও ভালবাসা। এগুলোও অমূল্য উপহার, তবে বস্তুগত নয়। সেটাই প্রাধান্য পাওয়া উচিৎ। সর্বোপরি উপহার গ্রহীতার সাথে উপহারদাতার আন্তরিক বন্ধনকে দৃঢ় করবে এটাই প্রত্যাশিত।

 

আবু জাফর শিহাব  ( এল এল বি )