Tuesday January26,2021

জার্মানিতে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আসা এক ব্যক্তির শরীরে করোনার নতুন স্ট্রেইনের সন্ধান মিলেছে। জার্মানির সামাজিক বিষয়ক মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে। এর মধ্য দিয়ে জার্মানিতেও আফ্রিকার কোভিড স্ট্রেইন সংক্রমণ হওয়া শুরু হয়েছে । এখন পর্যন্ত একজনের শরীরেই নতুন স্ট্রেইনের নমুনা মিলেছে। এটি জার্মানিতে রূপান্তরিত করোনার বৈকল্পিক B.1.351(Mutited)সংক্রমণের প্রথম অফিসিয়াল প্রমাণ।

সংক্রমিত ওই ব্যক্তির পরিবারের বাকি সদস্যদের করোনার নমুনাও বিশেষ পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে। কয়েক দিন আগেই পরিবারটি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে জার্মানিতে ফিরেছে। বেশ কিছু দিন দক্ষিণ আফ্রিকায় থাকার পর সপ্তাহকয়েক আগে জার্মানির বাডেন শহরে ফিরেছে একটি পরিবার। বিমানবন্দরেই পরিবারের সবার করোনা টেস্ট হয়। কিন্তু তখন করোনার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।

দিনকয়েক আগে ওই পরিবারটি এবং আশপাশের আরও কয়েকটি পরিবারের করোনার মৃদু লক্ষণ দেখা যায়। আবারও সবার করোনা পরীক্ষা করার পর সবার শরীরেই করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এদের মধ্যে একজনের শরীরে দক্ষিণ আফ্রিকার স্ট্রেইন পাওয়া গেছে। এই প্রথম জার্মানিতে কারও শরীরে দক্ষিণ আফ্রিকার স্ট্রেইন মিলল।

সম্প্রতি করোনার এই স্ট্রেইন গোটা বিশ্বেই আলোচনার কেন্দ্রে উঠে এসেছে। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে এই স্ট্রেইন পৌঁছে ছিল যুক্তরাজ্যে। সেখানে মানুষ দ্রুত করোনায় আক্রান্ত হতে শুরু করেন।

চিকিৎসকদের বক্তব্য, পুরনো করোনার স্ট্রেইনের থেকে এই স্ট্রেইন অনেক বেশি শক্তিশালী। তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে মানুষের শরীরে।

সর্বপ্রথম ২০২০ সালের ১৮ ডিসেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকাতে করোনাভাইরাসের নতুন রূপ (বি.1.3.351) কোভিড স্ট্রেইন ধরা পড়ে। করোনা ভাইরাসগুলোর মধ্যে এটি একটি অত্যন্ত সংক্রামক ভাইরাস। এ ভাইরাস খুব দ্রুত বেশ কয়েকটি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। গ্রেট ব্রিটেন এবং আয়ারল্যান্ডেও ছড়িয়ে পড়েছে। যার কারণে জার্মান ফেডারেল সরকার এবং ইউরোপের কিছু দেশ ডিসেম্বর শেষে গ্রেট ব্রিটেন, আয়ারল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ভ্রমণকারীদের নিষিদ্ধ করে এর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছিল। ফেডারেল স্বাস্থ্যমন্ত্রী ইয়েন্স স্পাহন ঝুঁকিপূর্ণ অঞ্চল থেকে জার্মানের উদ্দেশে প্রস্থান করার আগে করোনা টেস্ট বাধ্যতামূলক বলে ঘোষণা করেন।

মাহবুবুল হক /শুদ্ধস্বর ডটকমের বিশেষ প্রতিনিধি ।