Tuesday January26,2021

নান্নু মার্কেট সংলগ্ন মিরপুর সেকশন-বাসা-৯, রোড-৫, ব্লক-এ, সেই আলোচিত-সমালোচিত বাড়ীতে এখন কারা পরিবার পরিচয়ে বসবাস করছে ! রাজধানীর মিরপুর পল্লবীর ৫ কাঠা প্লটের বহুমুল্যবান এই বাড়ীতে দীর্ঘ দিন মালিক না থাকায় বাড়ীটি জন-মানবশূন্য থাকা অবস্থায় মিরপুরের শীর্ষ সন্ত্রাসী মামুন জামিল বাহিনীর অন্যতম সদস্যরা বাড়ীটি দখল করে।

জনশ্রুতি রয়েছে মামুন জামিল বাহিনীর সদস্য আমিরুজ্জান গং বাড়ীটিতে রাতের আধারে সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে দখল করে। এ বিষয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে একটি মানববন্ধন হয়। দেশের প্রথম সারির বিভিন্ন গন্যমাধ্যমে ভূমিদস্যু আমিরুজ্জামানের দখল বাজী সংবাদ প্রকাশিত হয়। সে সময়ে বাড়ীটি দেখতে ভীড় জমায় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে মিরপুর ২ হাউজিংয়ের লোকজনও আসে। স্থানীয় কাউন্সিলর, প্রশাসনের লোকজন বাড়ীটির বিভিন্ন ভাবে ক্ষতিয়ে দেখেন। খোজেন বাড়ীর প্রকৃত ওয়ারিশানদের। কিন্তু কিছুদিন আগে যারা বাড়ীটি দখল করে রেখেছিলেন তাদের দেখা মিলছেনা। বাড়ীটিতে নতুন আরেকদল দেখতে পেয়ে স্থানীয়দের মাঝে মিশ্রপ্রতিক্রিয়া দেখা দিছে।

অনুসন্ধানে জানাযায়, এই বাড়ীর মালিক দীর্ঘদিন আগে মারা যান। ওনার ছেলে মেয়ে না থাকায় তার আত্মীয়স্বজনরা এ বাড়ীর ওয়ারিশান হন। স্থানীয়দের বক্তব্য অনুযায়ী বর্তমানে এই বাড়ীর প্রকৃত ওয়ারিশান ১৯ জন তারা কেউ মিডিয়ার সামনে কথা বলতে রাজিনন। ব্যাপক অনুসন্ধানে আরো জানা যায়, শীর্ষ সন্ত্রাসী মামুন জামিলের সহযোগীদের কাছ থেকে তাদের প্রান সংশয়ের ভয় আছে। যার কারনে তারা তাদের বাড়ীটি দখল নিতে পারছেনা। বাড়ীর প্রকৃত কাগজপত্র মিরপুর ২ হাউজিং এবং জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ রেকর্ড রুমে কোনো তথ্য নেই বলে জানান কতৃপক্ষরা। কার ইশারায় বাড়ীটির মুল নথিপত্র গায়েব হলো সে বিষয়েও স্পষ্ট নয়। তবে আমাদের হাতে একটি জাতীয় গৃহায়ণের কাগজ এসেছে। প্রাপ্ত তথ্যের সত্যতা যাচাই করা হচ্ছে। জানা গেছে, কদিন আগে আমিরুজ্জামানের অনুসারী কথিত সাংবাদিক লিমন ওরপে ভুড়ি লিমন, তার (স্ত্রী-মক্ষীরানী) রানী ইয়াসমিন এই বাড়ীতে বসবাস করে। জাতীয় প্রেসক্লাবে মানববন্ধনের পর তাদের আর দেখা মিলছেনা।

আজ বুধবারের উক্ত বাড়ীটিতে দুটি বাচাসহ তিনজন নারী খুব হাসি-খুশি ক্ষুনশুটিতে অবস্থায় দেখা গেছে। স্থানীয়দের দাবী দুদিন পর পর এই বাড়ীতে বহিরাগতরা বিভিন্ন ধরনের মদ্যপানের পার্টির আয়োজন চলে। এতে আশেপাশে বসবাসকারীদের জনজীবনে বিঘ্ন ঘটে। এর থেকে পরিত্রাণের জন্য তারা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।