Saturday March6,2021

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নিবার্চনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, ধানের শীষের গণসংযোগে জনগণের অভূতপূর্ব সাড়া দেখে সরকারি দল দিশেহারা হয়ে পড়েছে। তারা নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করার জন্য ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছে। দলীয় ক্যাডার লেলিয়ে দিয়ে জনসাধারণের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে। আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বিএনপির বিরুদ্ধে মিথ্যা বিষোদগার শুরু করেছেন। এ সকল মিথ্যা অপপ্রচারের জবাব আগামী ২৭ জানুয়ারী জনগণ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে দিবে।

সোমবার (১১ জানুয়ারি) নগরীর ৪ নং চান্দগাঁও ওয়ার্ডে চসিক নিবার্চনের ধানের শীষের পক্ষে গণসংযোগকালে তিনি এ কথা বলেন।

নগরীর বহদ্দারহাট হক মার্কেটের সামনে থেকে গণসংযোগ শুরু হয়ে বহদ্দারহাট বাস টার্মিনাল, পুরাতন চাঁন্দগাও থানা, মৌলভী পুকুর পাড়, ওসমানিয়া গ্লাস ফ্যাক্টরী, বাহির সিগন্যাল মোড়ে গিয়ে শেষ হয়।

তিনি এসময় এলাকায় সাধারণ মানুষের সাথে সালাম ও শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। সর্বস্তরের জনসাধারণ স্বতস্ফূর্তভাবে তার সাথে গণসংযোগে অংশ নেন। নেতাকর্মীরা এলাকার সাধারণ জনগণের মাঝে ধানের শীষে ভোট চেয়ে প্রচার পত্র বিলি করেন। এসময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর,  চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান।

গণসংযোগে ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, দেশের স্বাধীনতা স্বার্বভৌমত্ব একমাত্র বিএনপির হাতেই নিরাপদ। বিএনপি কোন দেশের তাবেদারি করে না। যারা ভীনদেশের তাবেদারি করে এবং প্রভু মানে তাদের হাতে দেশের স্বাধীনতা স্বার্বভৌমত্ব নিরাপদ নয়, সেটা বার বার প্রমাণ হয়েছে। জনগণের ঘাড়ে চেপে বসা স্বৈরাচারী সরকার দিনের ভোট রাতে সম্পন্ন করে মানুষকে তাদের ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত করে জোর করে ক্ষমতায় আঁকড়ে আছে। তাই হারানো ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে আগামী ২৭ জানুয়ারী চসিক নিবার্চনে দলমত নির্বিশেষে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট যুদ্ধে অংশ নিয়ে স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রের প্রতীক ধানের শীষে ভোট প্রদান করতে হবে।

ডা. শাহাদাত বলেন, চান্দগাঁওবাসীর প্রতি সরকার বিমাতাসুলভ আচরণ করেছে, এখানে কোন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। ১২ বছরের শাসনামলে আওয়ামীলীগ কালুরঘাট সেতু পূর্ণনির্মাণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। আমি মেয়র নির্বাচিত হলে এই নির্বাচনী এলাকাকে মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত করে শান্তির জনপদে পরিণত করব। ধানের শীষ হচ্ছে উন্নয়ন, শান্তি ও সমৃদ্ধির প্রতীক। তাই আপনাদের কাছে ধানের শীষে ভোট চাই এবং আপনাদের দোয়া চাই।

গণসংযোগে আবুল হাশেম বক্কর বলেন, গত ১২ বছরে দুর্নীতির মাধ্যমে সরকারের মন্ত্রী ও দলীয় নেতাকর্মীদের উন্নয়ন হলেও সাধারণ জনগণের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটেনি। বিএনপি জনগণের উন্নয়ন ও পরিবর্তনে বিশ্বাসী। বিএনপি মুক্তিযোদ্ধার দল, মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের দল। উন্নয়ন ও শান্তির প্রতিক ধানের শীষে ভোট দিয়ে বিএনপিকে জয়যুক্ত করবেন।

আবু সুফিয়ান বলেন, চাঁন্দগাও এলাকায় অবস্থিত কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন। শহীদ জিয়ার মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত এই নির্বাচনী এলাকা হচ্ছে বিএনপির দূর্ভেদ্য ঘাঁটি। সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে ধানের শীষ বিপুল ভোটে জয়লাভ করবে।

গণসংযোগকালে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ও আহ্বায়ক কমিটির সদস্য এরশাদ উল্লাহ, নগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, সদস্য হারুন জামান, ৪নং চান্দঁগাও ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী মাহাবুবুল আলম, আর ইউ চৌধুরী শাহীন, আনোয়ার হোসেন লিপু, গাজী মোহাম্মদ সিরাজ উল্লাহ, সাবেক কোষাধক্ষ্য সৈয়দ শিহাব উদ্দিন আলম, চান্দঁগাও থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শরীফ উদ্দিন খান, চান্দঁগাও ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মো. ইলিয়াছ চৌধুরী, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী শাহে নেওয়াজ চৌধুরী মিনু, নগর যুবদলের সহ-সভাপতি ম. হামিদ, নগর স্বেচ্ছাসেবকদলের সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আলী মতুর্জা খান ও চান্দঁগাও থানা যুবদলের আহ্বায়ক গুলজার হোসেন।