Tuesday March9,2021

রাজধানীর দক্ষিণখান এলাকা থেকে ৭৫ কোটি টাকা মূল্যের সাপের বিষসহ আন্তর্জাতিক সাপের বিষ চোরাচালান চক্রের ছয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-২।

শুক্রবার (২৫ ডিসেম্বর) সকালে র‍্যাব-২ এর সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আবদুল্লাহ আল মামুন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘দক্ষিণখান থানাধীন ৫০ নম্বর ওয়ার্ড গুলবার মুন্সি স্মরণী রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।’

গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন- মো. মাসুদ রানা (২৪), মো. ছফির উদ্দিন শানু (৫০), মো. তমজিদুল ইসলাম মনির (৩৪), মো. আলমগীর হোসেন (২৬), ফিরোজা বেগম (৫৭) ও আসমা বেগম (৪২)।

সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে র‌্যাব-২-এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, রাজধানীর দক্ষিণখান থানাধীন ৫০ নম্বর ওয়ার্ডের গুলবার মুন্সি স্মরণী রোড এলাকায় কয়েকজন আন্তর্জাতিক চোরাচালান চক্রের সদস্য বিপুল সাপের বিষ নিয়ে চোরাচালানের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে। এই সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে উপস্থিতি টের পেয়ে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে চোরাচালান চক্রের সদস্যরা। এ সময় মো. মাসুদ রানা, মো. ছফির উদ্দিন শানু, মো. তমজিদুল ইসলাম মনির, মো. আলমগীর হোসেন, ফিরোজা বেগম ও আসমা বেগম নামের ছয়জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় র‍্যাব।

তিনি আরও বলেন, গ্রেফতার ব্যক্তিদের সাপের বিষ সংক্রান্ত বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে প্রথমে তারা বিষয়টি অস্বীকার করেন। পরে তাদের সঙ্গে থাকা ব্যাগে তল্লাশি চালিয়ে কাচের জারে রক্ষিত অবস্থায় আট কেজি ৯৬০ গ্রাম সাপের বিষ পাওয়া যায়, যার আনুমানিক মূল্য ৭৫ কোটি টাকা। এছাড়াও তাদের সঙ্গে থাকা সাপের বিষ সংক্রান্ত সিডি ও সাপের বিষের ম্যানুয়াল বই উদ্ধার করা হয়।

র‍্যাব বলছে, গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, একটি নির্দিষ্ট গোষ্ঠীর কাছে সাপের বিষের ব্যাপক চাহিদা থাকায় অধিক মুনাফার লোভে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সাপের বিষ সংগ্রহ করে চোরাচালান করে আসছেন তারা। ওই ব্যক্তিরা একটি সংঘবদ্ধ আন্তর্জাতিক সাপের বিষ চোরাচালান চক্রের সক্রিয় সদস্য।

এছাড়াও তাদের জিজ্ঞাসাবাদে আরো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে, যা যাচাই-বাছাই করে ভবিষ্যতেও র‌্যাব-২-এর এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।