Sunday February28,2021

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বুধবার বিকেলে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একজন এবং রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরেকজনের মৃত্যু হয়। এর আগে গত সোমবার ঘটনার দিনই হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায় একজন।

নিহতরা হলেন- রাঘদী গ্রামের মৃত জলিল শেখের ছেলে কালাম শেখ (২৫), দাসেরকান্দী গ্রামের মোসলেস ফকিরের ছেলে কালাই ফকির (৪৫) ও শ্রীযুতপুর গ্রামের করিম মোল্লার ছেলে সাহিদ মোল্যা (৪০)।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, গত সোমবার সকাল ৮টার দিকে মুকসুদপুর উপজেলার রাঘদী ইউনিয়নের শ্রীযুতপুর গ্রামে উক্ত ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন ও সাবেক চেয়ারম্যান সাহিদুর রহমান টুটুলের সমর্থকদের মধ্যে এক রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। এতে উভয়পক্ষের প্রায় ২০ জন আহত হয়। ওইদিন গুরুতর আহত কালাম শেখকে (২৫) রাজৈর হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় আহত কালাই ফকির ও সাহিদ মোল্যাসহ তিনজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর মধ্যে ফরিদপুর মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার বিকেলে কালাই ফকির ও রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাহিদ মোল্যা­র মৃত্যু হয়।

এদিকে, মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় বর্তমানে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মুকসুদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর মিয়া জানান, উপজেলার রাঘদী ইউনিয়নে সংঘর্ষের ঘটনায় এ পর্যন্ত তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন মামলা দায়ের হয়নি।