সিগারেটের আগুনে পুড়ে বাবা-মেয়ের মৃত্যু

নারয়ণগঞ্জের ফতুল্লায় মশারির ভেতরে শুয়ে ধুমপান করছিলেন দীপায়ন সরকার। সিগারেটের আগুন না নিভিয়ে তিনি ঘুমিয়ে পড়েন।  সেখান থেকে মশারিতে আগুন লেগে যায়। সেই আগুনে পরিবারের তিন জন দগ্ধ হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাবা- মেয়ে মারা যান। দগ্ধ গৃহবধূকে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।

শনিবার (২১ নভেম্বর) রাতে উপজেলার দাপা ইন্দ্রাকপুর এলাকার সরদার বাড়িতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- ইন্দ্রাকপুর মহল্লার দীপায়ন সরকার (৩৫) ও তার মেয়ে দিয়া রানী সরকার (৫)। এ ঘটনায় আহত দীপায়নের স্ত্রী পপি সরকার (৩০) হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, ইন্দ্রাকপুর সরদার বাড়ির আনোয়ার হোসেনের ভাড়া বাসায় পরিবার নিয়ে থাকতেন দীপায়ন। রাতে মশারির ভেতর ধুমপান করছিলেন। সেখান থেকে মশারিতে আগুন লেগে যায়। আগুনে পরিবারের তিনজন দগ্ধ হয়। প্রতিবেশীরা তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠালে বাবা-মেয়ে মারা যায়। দীপায়নের স্ত্রী হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

তিনি আরও জানান, আগুনে ঘরের মশারি ও বালিশ পুড়ে গেছে। এ বিষয়ে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: