বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক

রাজধানীর বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক। শনিবার সকালে আদ-দ্বীন হাসপাতালের জনসংযোগ কর্মকর্তা তবিবুর রহমান আকাশ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।  

আকাশ বলেন, সকাল সাড়ে ১০টায় আদ্-দ্বীন হাসপাতাল সংলগ্ন মসজিদে ব্যারিস্টার রফিকের জানাজার পর মরদেহ পল্টনের বাড়িতে নেওয়া হবে। সেখান থেকে মরদেহে নেওয়া হবে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে।

বাদ জোহর সেখানে জানাজার পর মরদেহ নেওয়া হবে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে। সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে জানাজার পর বিকালে ব্যারিস্টার রফিককে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে।

ব্যারিস্টার রফিক উল হক আজ শনিবার সকাল ৮ টা ৩০ মিনিটে রাজধানীর আদ-দ্বীন হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন(ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর।

গত ২১ অক্টোবর থেকে র‌্যারিস্টার রফিক-উল হককে ওই হাসপাতালের আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। রক্তশূন‌্যতাসহ বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগছিলেন তিনি।

এর আগে গত ১৫ অক্টোবর সন্ধ্যায় তাকে আদ-দ্বীন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে ডা. রিচমন্ড রোল্যান্ড গোমেজের তত্ত্বাবধানে তার চিকিৎসা চলছিল।

রফিক-উল হকের জন্ম ১৯৩৫ সালে সালের ২ নভেম্বর কলকাতার সুবর্ণপুর গ্রামে। তিনি ১৯৯০ সালের ৭ এপ্রিল থেকে একই বছরের ১৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা (অ্যাটর্নি জেনারেল) ছিলেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: