২৮ শে অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত বিমান চলাচল

‘এয়ার-বাবল’ ব্যবস্থাপনার অধীনে আগামী ২৮ শে অক্টোবর বাংলাদেশ -ভারত বিমান চলাচল শুরু হচ্ছে। করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে এই যোগাযোগ ৮ মাস স্থগিত থাকার পর আবার তা চালু হচ্ছে। এর অধীনে বাংলাদেশের তিনটি বিমান সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স এবং নভোএয়ার প্রতি সপ্তাহে ২৮টি ফ্লাইট পরিচালনা করবে। অন্যদিকে ভারতের ৫টি বিমান সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়া, ভিস্তারা, ইন্ডিগো, স্পাইটজেট এবং গোএয়ার সমসংখ্যক ফ্লাইট সাপ্তাহিক ভিত্তিতে পরিচালনা করবে। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক ঘোষণায় এ কথা জানিয়েছে। এ খবর দিয়েছে ভারতের অনলাইন এএনআই। এতে বলা হয়েছে, সুনির্দিষ্ট বিধিনিষেধের মধ্যে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনায় দুই দেশের বিমান সংস্থাগুলোকে সহায়তা করছে ‘এয়ার-বাবল’ ব্যবস্থাপনা। জুলাই মাস থেকে বেশ কিছু দেশের সঙ্গে এই ব্যবস্থাপনা স্থাপন করে যোগাযোগ রক্ষা করছে ভারত।

এর মধ্যে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, বৃটেন, ফ্রান্স এবং জার্মানি। বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের প্রধান, চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম. মফিদুর রহমান বলেছেন, বিমান তার ফ্লাইট পরিচালনা করবে ঢাকা-দিল্লি-ঢাকা এবং ঢাকা-কলকাতা-ঢাকা রুটে। ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স চলাচল করবে ঢাকা-চেন্নাই রুটে। নভোএয়ার চলাচল করবে ঢাকা-কলকাতা-ঢাকা রুটে। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের মতে, ভারতের পাঁচটি বিমান সংস্থার ফ্লাইট চলাচল করবে ঢাকা-দিল্লি-ঢাকা, ঢাকা-কলকাতা-ঢাকা, ঢাকা-চেন্নাই-ঢাকা এবং ঢাকা-মুম্বই-ঢাকা রুটে। ওদিকে বাংলাদেশে ভারতের হাই কমিশন ৯ই অক্টোবর ঘোষণা দিয়েছে, তারা বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য অনলাইনে ভিসা আবেদন কার্যক্রম শুরু করছে। বর্তমানে ৯টি ক্যাটেগরিতে ভিসা ইস্যু করা হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছেন মেডিকেল, ব্যবসা, চাকরি, সাংবাদিক, কূটনৈতিক ব্যক্তিত্ব, সরকারি কর্মকর্তা, জাতিসংঘের কর্মকর্তা এবং জাতিসংঘের কূটনীতিকরা।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: