তিন সপ্তাহ যাবত আল আকসায় জুমা বন্ধ

একধারে তিন সপ্তাহ যাবত ফিলিস্তিনের আল আকসা মসজিদে জুমার নামাজ আদায়ে নিষেধাজ্ঞা বলবৎ আছে। পশ্চিম জেরুজালেম শহরের বাইরের লোকদের জন্য আল আকসা মসজিদে জুমার নামাজ আদায় নিষিদ্ধ করে ইসরায়েলের দখলদার বাহিনী।

তুরস্ক ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আনাদোলু এজেন্সি জানায়, প্রাচীন শহর জেরুজালেম শহরের ফটকের সামনে দায়িত্বরত পুলিশ অফিসাররা বহিরাগতদের প্রবেশে বাধা দেয়।

খবরে আরো বলা হয়, প্রাচীন শহর পশ্চিম জেরুজালেমের বাসিন্দাদের জন্য আল আকসায় নামাজ আদায় শিথিল আছে। শহরের বাইরের সবার জন্য আল আকসায় নামাজ আদায়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

করোনা ভাইরাসরোধে বহিরাগতদের জন্য প্রাচীন শহরে প্রবেশে বিধি-নিষেধ আরোপ করে। আগামী ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত শহরে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে। শহর থেকে এক কিলোমিটার দূরত্বে থাকা সবার ওপর এ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

শহরে বহিরাগতদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা থাকায় আল আকসা মসজিদের জুমার নামাজ আদায়ে আগ্রহী মুসল্লিরা আসতে পারছেন না। করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের পরও প্রতি জুমায় প্রায় ১০ হাজারের বেশি মুসল্লি অংশগ্রহণ করেন। আর স্বাভাবিক সময়ে জুমার নামাজে অংশ নেয় ৫০ হাজারেরও বেশি মুসল্লি।

এদিকে করোনা মহামারির মধ্যেই ইহুদি ধর্মাবলম্বীরা গির্জায় হিব্রু নববর্ষের ধর্মীয় উৎসব পালন করে। এসময় তাঁরা গির্জা সংস্থার ডাকে সাড়া দিয়ে আল আকসা মসজিদের ওপর সম্মিলিত হামলা করে।

করোনারোধে পুরোপুরি লকডাউনের সময় আল আকসা প্রাঙ্গণে নামাজ আদায় স্থগিত করার কথা ভাবে ইসলামি ওয়াকফ বিভাগ। কিন্তু এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আল আকসা প্রাঙ্গণে নামাজ আদায় করতে বলা হয়।

এর আগে গত এপ্রিল ও মে দুই মাসের জন্য আল আকসা মসজিদ নামাজ আদায়কারীদের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে ওয়াকফ কাউন্সিল।

ইসরায়েলে গতকাল পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হন দুই লাখ ৮৬ হাজার ৩৯৩জন। মারা যান এক হাজার ৮৬৪জন। আর সুস্থ হন দুই লাখ ২৫ হাজার ১৮০জন।

সূত্র : আল জাজিরা

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: