সিল্কের মাস্কেই রয়েছে COVID-19 আটকানোর ক্ষমতা

  করোনা কালে (CoronaVirus) সুরক্ষিত থাকার অন্যতম হাতিয়ার ফেস মাস্ক (Face Masks)। N95, সার্জিক্যাল মাস্ক, কটন মাস্ক, প্রিন্টেড মাস্ক থেকে ডিজাইনার মাস্ক- হরেক রকমের মাস্ক বাজারে ছেয়ে গিয়েছে। এতে কি আদৌ লাভ হচ্ছে? কিছুটা তো হচ্ছে! কিন্তু সবচেয়ে বেশি কার্যকরি মাস্ক কোনটি? প্রশ্নের উত্তরে অনেকেই N95 মাস্কের কথা বলবেন নিশ্চয়ই। তার থেকে কোনও অংশে কম যায় না সিল্কের মাস্ক। এমনটাই দাবি করছেন মার্কিন গবেষকরা।

আমেরিকার (US) সিনসিনাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের (University of Cincinnati) গবেষকরা বিস্তর গবেষণার পরই এমনটা জানাচ্ছেন। তাঁদের দাবি, শুঁয়োপোকার কল্যাণেই সিল্কের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি। বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োলজি বিভাগের সহকারি অধ্যাপক প্যাট্রিক গুয়েরা (Patrick Guerra) জানাচ্ছেন, সিল্কের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিমাইক্রোবায়াল, অ্যান্টিব্যাক্টিরিয়াল এবং অ্যান্টিভাইরাল উপাদান মজুদ রয়েছে। আর এর নেপথ্যের কারিগর শুঁয়োপোকা। হ্যাঁ! ঠিকই পড়ছেন। শুঁয়োপোকার কল্যাণেই সিল্কে এত গুণ। কারণ, শুঁয়োপোকারা তুঁত (Mulberry) পাতা খেতে ভালবাসে। আর তাতে প্রচুর পরিমাণে তামা থাকে। তামার সৌজন্যেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে।

এখানেই আবার ভারতের সনাতন আয়ুর্বেদ শাস্ত্রের মিল খুঁজে পাচ্ছেন অনেকে। তাঁদের দাবি, যেকথা আজ মার্কিন গবেষকরা এই করোনা (COVID-19) পরিস্থিতিতে নতুন করে আবিষ্কার করেছেন। তা বহুকাল ধরেই ভারতবর্ষে প্রচলিত। মার্কিন গবেষকরা নাকি, সূতি এবং ফাইবার কাপড়ও পরীক্ষা করে দেখেছেন। কিন্তু একমাত্র সিল্কের মধ্যেই এমন উপাদান পেয়েছেন যা N95 মাস্কের মতো ক্ষতিকারক ভাইরাসকে প্রতিহত করতে পারে। এর পাশাপাশি উপরিপাওনা সিল্কের নরম টেক্সচার। যার ফলে সিল্কের মাস্ক পরা খুবই আরামদায়ক। আর এতে নিশ্বার নেওয়ারও কোনও সমস্যা নেই। করোনা কালে মাস্কের চাহিদা ক্রমাগত বাড়ছে। সকলের পক্ষে N95 মাস্ক ব্যবহার করা সম্ভব নয়। অনেকে ক্ষেত্রে আবার এই মাস্ক বেশ কষ্টকর। সেই ক্ষেত্রে সুরাহা হয়ে উঠতে পারে সিল্কের মাস্ক। এমনটাই দাবি গবেষকদের।  সুত্র, সংবাদ প্রতিদিন ।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: