ফ্রান্সে আবারও ভয়ঙ্কর রূপে করোনা

প্রথম দফায় বহু লোকের প্রাণনাশ করে ফ্রান্সে আবারও ভয়ঙ্কর রূপে ফিরেছে করোনাভাইরাস। দেশটির প্যারিস, বোর্ডক্স ও ভূ-মধ্যসাগরীয় উপকূলীয় মার্সেলের মতো বড় বড় শহরগুলোর হাসপাতালে করোনা রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় ফরাসি হাসপাতালগুলো এখন দীর্ঘমেয়াদি প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে। বুধবার আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সিএনএন এতথ্য জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়, ফ্রান্সজুড়েই এখন প্রথম ধাপের চেয়ে বেশি করোনা রোগীর মুখোমুখি হচ্ছেন হাসপাতালের কর্মীরা। করোনাভাইরাসের রোগীদের উপসর্গ কমিয়ে আনতে বোর্ডক্স ইউনিভার্সিটি হসপিটাল কর্তৃপক্ষ স্টেরয়েড ওষুধ মজুদ ও ভেন্টিলেটর সেবা উন্নত করছে। এ দুই ব্যবস্থা করোনা রোগীদের লাইফ সাপোর্টে যাওয়ার হার কমিয়ে আনতে সহায়তা করে।

তবে অন্যান্য রোগীর পাশাপাশি ক্রমবর্ধমান করোনা রোগীর সেবা দেওয়া কঠিন হয়ে পড়বে বলে মনে করেন হাসপাতালটির পরিচালক ডা. ক্যাথেরিন ফ্লরো। তিনি বলেন, এবারের পরিস্থিতি শেষবারের চেয়ে কঠিন হতে চলেছে। কারণ আমি মনে করি এবারের ঢেউ ধারাবাহিকভাবে আগের চেয়ে বেশি হবে এবং সময়ের সাথে সাথে সেটি শেষ হবে। 

ফ্রান্সের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা সম্প্রতি বলেছেন, নতুন আক্রান্তদের প্রায় এক-চতুর্থাংশ কর্মক্ষেত্রে সংক্রমিত হয়েছে এবং তাদের সঙ্গে মেডিক্যালের কোনো সংযোগ নেই। সরকার বাজেটের ১১ শতাংশ ঘাটতি পূরণ করার জন্য সবাইকে কাজে ফিরতে উৎসাহিত করার সঙ্গে সঙ্গেই নতুন করে এই সংক্রমণ বৃদ্ধির ঘটনা ঘটেছে।

শুদ্ধস্বর/আইপি

 

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: