শোকে স্তব্ধ ইউএনও নাহিদা বারিক

শেখ ফরিদকে পরশু রাতে অসত্য বলেছিলাম কিছুই হবে না তোমার, তুমি সুস্থ হয়ে যাবে-ফরিদের মাকে বলেছিলাম অপেক্ষা করেন, আল্লাহকে ডাকেন-এ অপেক্ষা কি তাহলে চির বিদায়ের? আল্লাহ আপনি সহায় হোন।

এভাবেই শোকে স্তব্ধ হয়ে বৃহস্পতিবার বিকালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের আইডি থেকে একটি স্ট্যাটাস দেন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাহিদা বারিক।

ওই সময়ে আইডিতে আপলোড হওয়া ছবিতে দেখা যায়, শেখ ফরিদের মা ইউএনওকে জড়িয়ে ধরে কাঁদছেন। ওই সময় নাহিদা বারিকও চোখের জল ধরে রাখতে পারেনি। ফরিদের মাকে জড়িয়ে ধরে তিনিও কাঁদতে থাকেন। কারণ ফরিদও মৃত্যুর মিছিলে নাম লিখিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার এশার নামাজের সময় ফতুল্লা তল্লা বাইতুস সালাম জামে মসজিদে বিস্ফোরণে অগ্নিদগ্ধ নিহতদের লাশ গ্রহণ করে পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দিচ্ছেন ইউএনও নাহিদা বারিক। প্রথম দিন থেকেই খুব মন খারাপ ছিল ওই সরকারি কর্মকর্তার। বিভিন্ন সময়ে স্বজনদের কান্নার আহাজারি নিজেকে ধরে রাখতে পারেনি তিনি। দগ্ধদের মধ্য থেকে সুস্থ হয়ে ফিরে আসা মামুনের বাড়িতে গিয়ে ফল নিয়ে হাজির হয়েছেন। এছাড়া অগ্নিদগ্ধ সালমা যে কিনা মসজিদের বাইরে ছিল-কখন সে আহত হয়েছে তার খবর কেউ নিতে পারেনি। পরে তার বাড়িতে গিয়ে তাকে দেখতে যান ইউএনও নাহিদা বারিক।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: