করোনা ‘মারাত্মক’ জেনেও চুপ ছিলেন ট্রাম্প: বইয়ে সাংবাদিকের দাবি

করোনাভাইরাস ‘মারাত্মক’ এবং অন্য ফ্লুর চেয়েও ভয়ঙ্কর, এটা জেনেও ফেব্রুয়ারি-মার্চে এর ঝুঁকি সম্পর্কে ইচ্ছাকৃতভাবে আমেরিকানদের ভুলভাবে পরিচালিত করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আমেরিকান সাংবাদিক বব উডওয়ার্ডের আসন্ন বইয়ে এসব বলা হয়েছে।

উডওয়ার্ডের সঙ্গে রেকর্ড করা কথোপকথনে ট্রাম্প বলেছেন, আতঙ্ক তৈরি করতে চাননি বলে করোনাভাইরাসের ঝুঁকি নিজের মনে চেপে রেখেছিলেন। দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি টেলিফোন কলে ট্রাম্প উডওয়ার্ডকে বলেছিলেন, ‘আপনি শুধু শ্বাস নিলেই এটা ভেতরে ঢুকছে। এটা খুবই সূক্ষ্ম। এটা অনেক বেশি মারাত্মক, এমনকি তীব্র ফ্লুগুলোর চেয়েও।’ শেষ কথাটি আরও জোর দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট পুনরাবৃত্তি করেন, ‘এটা মারাত্মক একটা জিনিস।’

২০১৯ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০২০ সালের জুলাই পর্যন্ত প্রেসিডেন্টের মুখোমুখি হয়ে ১৮টি সাক্ষাৎকার নেন উডওয়ার্ড। ওই সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে লেখা ‘রেজ’ নামের বইটি প্রকাশিত হবে ১৫ সেপ্টেম্বর।

বইতে আরও বলা হয়েছে, গত ২৮ জানুয়ারি একটি গোয়েন্দা ব্রিফিংয়ে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টাদের কাছ থেকে ট্রাম্প জানতে পারেন এই ভাইরাস গুরুতর হুমকি। উডওয়ার্ড লিখেছেন, ট্রাম্পকে প্রেসিডেন্টের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা রবার্ট ও’ব্রায়েন বলেছেন, ‘এটাই হতে যাচ্ছে আপনার প্রেসিডেন্ট মেয়াদের সবচেয়ে বড় হুমকি। আপনি সবচেয়ে কঠিন বিষয়ের মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন।’

গোয়েন্দা বিভাগের সতর্কতার পরও ফেব্রুয়ারিতে জনগণের সামনে ভাইরাসের ঝুঁকি নিয়ে কোনও কিছু বলেননি ট্রাম্প। আমেরিকানদের কাছে কোনও সতর্কবার্তা পাঠাননি তিনি। ২ ফেব্রুয়ারি ফক্স নিউজের সঞ্জালক সিন হ্যানিটিকে তিনি বলেন, ‘আমাদের অবশ্যই চীন থেকে কারও আসা বন্ধ করে দিতে হবে।’

সমালোচকদের মতে, ভাইরাসের সঙ্গে লড়াইয়ে জাতীয় কৌশল বাস্তবায়নে প্রেসিডেন্টের ব্যর্থতা ও ঢিলেমির কারণে মহামারিতে অনেক বেশি মানুষ মারা গেছে এবং অর্থনৈতিক ক্ষতিও হয়েছে।

এখন পর্যন্ত আমেরিকায় ১ লাখ ৯০ হাজারের বেশি মৃত্যু হয়েছে এবং আক্রান্তের সংখ্যা ৬৩ লাখ ছাড়িয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: