সংসদে প্রশ্ন পাল্টে ভুল উত্তর দেওয়ার অভিযোগ বিএনপির এমপি হারুনের

সংসদে এমপিদের জমা দেওয়া প্রশ্ন পাল্টে দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ। তিনি বলেছেন, প্রশ্ন গ্রহণ করা হবে নাকি বাতিল হবে সেই এখতিয়ার স্পিকারের রয়েছে। কিন্তু পাল্টে দেওয়ার সুযোগ নেই। একই সঙ্গে আগের দিন সোমবার সংসদের বৈঠকে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দেওয়া একটি উত্তর ভুল দাবি করে তা বাতিলের দাবী জানিয়েছেন এই সংসদ সদস্য।

মঙ্গলবার সংসদের বৈঠকে তিনি এসব দাবি জানান। সকাল ১১টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়। বিএনপির এমপি হারুনের এসব অভিযোগের জবাবে স্পিকার জানিয়েছেন, এমপিদের জমা দেওয়া প্রশ্নোত্তর পর্বের প্রশ্ন পরিবর্তন হয় কী না তা খতিয়ে দেখা হবে। স্পিকার বলেন, প্রশ্ন পরিবর্তনের যে বিষয়টি ওঠেছে তা তিনি খতিয়ে দেখবেন। প্রশ্ন ঠিক থাকে, না পরিবর্তন হয় সেটা অবশ্যই খতিয়ে দেখা হবে।

এর আগে সংসদের বৈঠকে হারুনুর রশীদ কার্যপ্রণালী বিধির বরাত দিয়ে বলেন, ‘আমরা কষ্ট করে সংসদে প্রশ্ন জমা দেই। তার আলোকে স্পিকার তার নিজস্ব ক্ষমতা বলে যেগুলো গ্রহণ করে; মন্ত্রীরা তার উত্তর দেন। আমরা যেভাবে প্রশ্নটা জমা দেই (প্রিন্ট কপিতে), হুবহু সেইভাবে আসা উচিত। আপনি গ্রহণ না করতে পারেন। কিন্তু আপনার মত করে তো পরিবর্তন করতে পারবেন না। এই বিষয়টি দৃষ্টিতে আনতে চাই।’

এদিকে আগের দিন সোমবার সংসদে বৈঠকে মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস বিষয়ক এক প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দেওয়া উত্তর সঠিক নয়- এমন অভিযোগ তুলে হারুনুর রশীদ তা বাতিলের দাবি জানান। তিনি বলেন, প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, ‘গোয়েন্দা নজরদারির মাধ্যমে স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। ভর্তি প্রক্রিয়ায় অসৎ উপায়ে ভর্তির কোন অভিযোগ কোন পক্ষ থেকে পাওয়া যায়ানি। অভিযোগ পাওয়া গেলে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্য সঠিক নয়-এমন দাবি তুলে হারুনুর রশীদ গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, ২০১৪ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত প্রতি বছরই ধারাবাহিকভাবে প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে। এর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সিআইডি তদন্ত করে সত্যতা পেয়েছে। অনেকেকে গ্রেফপ্তার করা হয়েছে। অনেকে প্রশ্নফাঁস করে কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে। মন্ত্রী যে উত্তরটি দিয়েছেন তা সঠিক নয়। এই উত্তর বাতিল করতে হবে।
এ বিষয়ে অবশ্য স্পিকার কোন মন্তব্য করেননি।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: