মিশা ও জায়েদকে এক হাত নিলেন ওমর সানী

জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ওমর সানী আবারও ক্ষোভ ঝাড়লেন বর্তমান চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে নিয়ে। চিত্রনায়ক নিরব ও ইমনের উপস্থাপনায় এক রেডিও অনুষ্ঠানে তিনি সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগরকে নিয়ে বলেন, ‌‘মিশা আমার বন্ধু, তার অনেকগুণ আছে, কিন্তু সে প্রচুর মিথ্যা কথা বলে। কথা কথায় বলে আমি নামাজ পড়ি, হজ করেছি। আরে আমরা কি হজ করিনি, তুই একাই নামাজ পড়িস, হজ করেছিস। তুই একটা কাপুরুষ, কাপুরুষতা কবে ছাড়বি মিশা?’

ওমর সানী এসময় জায়েদ খানের সমালোচনা করে বলেন, ফাজলামির একটা সীমা আছে। এখন শুনলে মনে হয় চলচ্চিত্র সমিতি মানেই জায়েদ খান। নিজে নিজে সিদ্ধান্ত নিয়ে বলে কমিটির সিদ্ধান্ত। এখানে তুই (উপস্থাপকের ইমনের দিকে ইঙ্গিত করে) তো উপস্থিত আছিস, তুই কমিটির মেম্বার। ১৮৪ জনকে যে বাদ দেওয়া হলো, তোর মতামত নেওয়া হয়েছে? ও নিজের সিদ্ধান্ত সবার ওপরে চাপিয়ে দেয়।

জায়েদের উদ্দেশ্যে আরও বলেন, পরকীয়া বা গুঞ্জন সব সময়ই ছিল কিন্তু এই সময়ে চলচ্চিত্রের মেয়েদের নিয়ে এতো কথা শুনতে হয়। চলচ্চিত্রের মেয়েদের নাঙ্গা করে দিল এই ছেলেটা। একে স্যাক (বহিষ্কার) করা উচিৎ।

সানী বলেন, আমার শ্যালিকা ইরিন জামানের সদস্যপদ বাতিল করা হলো। আমি মিশাকে বললাম, ইরিনের ব্যাপারটা দেখতে। সে আমাকে বলে আমি তো জানি না, তুই একটু সেক্রেটারির (জায়েদ খান) সাথে কথা বল। আরে ব্যাটা আমি কেন তোর সেক্রেটারির সাথে বলবো?

ওমর সানী বলেন, মিশা আমাদের ফ্রেন্ড সার্কেলের অথচ একটা সভাপতি পদের জন্য সে কি রকম লালায়িত। আসলে এটা ওর কাছে আশা করি না। ১৮৪ জনকে কেন সদস্যপদ থেকে সরানো হলো এই প্রশ্ন করতে সে নির্বিকার ভাবে বলল আমি জানি না, এই রকম কাপুরুষতা করে সে।

 

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: