ভাড়াটিয়ার রডের আঘাতে বাড়িওয়ালার মৃত্যু

মাদারীপুরের শিবচর পৌরসভার গুয়াতলা এলাকায় ভাড়াটিয়ার রডের আঘাতে গুরুতর আহত অবস্থায় বাড়িওয়ালা ঢাকার ইবনে সিনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার রাতে আহত আবু আলম আকন মারা যান।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নিহত আবু আলমের বাড়িতে প্রায় ৩ বছর যাবৎ ভাড়া থাকেন মায়া বেগম। মায়া বেগম ও তার পরিবারের উচ্ছৃঙ্খল চলাচলের কারণে বাড়িওয়ালা আবু আলম আকন দীর্ঘদিন ধরেই বাড়ি ছেড়ে দিতে তাকে নোটিশ দেয়। কিন্তু ভাড়াটিয়া কিছুতেই বাড়ি ছেড়ে যেতে চায়নি। এরই জেরধরে গত সোমবার দুপুরে (২৪ আগস্ট) বাড়িওয়ালা আবু আলম আকন এর সাথে ভাড়াটিয়া মায়া বেগমের বাগবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায় ভাড়াটিয়া মায়া বেগমের ভগ্নিপতি বিপ্লব মিয়ার নেতৃত্বে ৬/৭ জনের একটি দল বাড়িওয়ালা আবু আলম আকন ও তার পরিবারের উপর হামলা চালায়। তাকে মারধরসহ বুকে রড দিয়ে আঘাত করে। বুকে রডের আঘাতে এক পর্যায়ে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরণ করেন। তাকে ঢাকার ইবনে সিনা হাসপাতালে নেওয়ার পর হৃদরোগ ধরা পরে। কর্তব্যরত চিকিৎসক তার বুকে রিং পরান। দুইদিন চিকিৎসার পরও অবস্থা অবনতি হলে বৃহস্পতিবার রাতে (২৭ আগস্ট) চিকিৎসাধীন আবু আলম আকন মারা যান।

শিবচর থানা অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ জানান, ভাড়াটিয়া ও বাড়িওয়ালার মধ্যে একটা ভাড়া নিয়ে মারামারির ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় বাড়িওয়ালা আবু আলম আকন আহত হন। তাকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: