Wednesday January20,2021

বাংলাদেশে কখন কী ঘটে বলা যায় না সাম্প্রতিক সময়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও যুবদলের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, ‘কিসের আতঙ্কে কি কারণে এরকম ভয়ঙ্কর কথা বললেন? কারা ষড়যন্ত্রকারী, কারা যে কোন মুহূর্তে যে কোন ঘটনা ঘটাতে পারে। তাদের মুখোশ উন্মোচন করেন, জাতি জানতে চায়।’

আজ ২৮ আগস্ট বিকেলে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় জিয়া সাংস্কৃ‌তিক সংগঠন (জিসাস) এর উদ্যো‌গে জিসাসের প্রতিষ্ঠাতা চেয়া‌রম‌্যান আব‌ুল হা‌শেম রানার স্বরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তি‌নি এসব কথা ব‌লেন।

নির্বাচন কমিশনের কড়া সমালোচনা করে বিএনপির এই শীর্ষনেতা বলেন, ‘আপনারা দেখেছেন নির্বাচন কমিশন তার যে কার্যক্ষমতা সেই ক্ষমতাটা দিয়ে দিচ্ছে সরকারের হাত।অর্থাৎ কিছু মানুষ আছে দায়িত্ব পালন করে জীবনের সার্থকতা মনে করে, আর কিছু মানুষ আছে শুধু ভোগ করবে দায়িত্ব পালন করবে না। অথর্ব যাদেরকে বলে, এটা হচ্ছে অথর্ব নির্বাচন কমিশন।

জিসাসের প্রতিষ্ঠাতা চেয়া‌রম‌্যান আব‌ুল হা‌শেম রানার সম্প‌র্কে যুব দ‌লের এই সা‌বেক সভাপ‌তি বলেন, আবুল হাশেম রানা দীর্ঘ ২৮ বছর অর্থাৎ দুই যুগেরও বেশি সময় ধরে একটি সংগঠনকে যেভাবে ধরে রেখেছেন। এবং যেরকম নিবেদিতপ্রাণ ছিলেন, সবচেয়ে বড় কথা রানা বিনয়ী ছিলেন, ভদ্র ছিলেন, হাসিমুখে ছিলেন, বেগম জিয়া ভিড়ের মধ্যেও তাকে দেখলে এই রানা বলে ডাক দিতেন। এই যে একটা জিনিস এটা তিনি তার কাজের মধ্য দিয়ে অর্জন করে নিয়েছিলেন।

তি‌নি ব‌লেন, আমাদের জাতীয়তাবাদীর শক্তির একজন সৈনিক চূড়ান্ত জায়গায় চলে গেছেন। আমাদের সবাইকে সেখানে যেতে হবে। সুতরাং আমরা যাকে ভাল জানি, যে মানুষের জন্য কাজ করেছে, সমাজের জন্য কাজ করছে, সংস্কৃতিক এর জন্য কাজ করেছে, সেই কাজগুলো যদি একটি দুটি পাঁচটি করে আমরা সফল করতে পারি তাহলে আজকের এই স্মরণ সভা সফল হবে। তাহলে তাকে সম্মান জানানো হবে। তাহলেই কেবল মাত্র রানাকে ভালোবাসা হবে। মৌখিক কোন স্বীকৃতি দিয়ে নয়। তার চরিত্রের ভালো গুণগুলো একটি একটি করে আমরা ধারণ করার চেষ্টা করি।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি গুলনাহার ইভার সভাপতিত্বে এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম, জাসাসের যুগ্ম-মহাসচিব রফিকুল ইসলাম, অভিনেতা আমির হোসেন, যুবদলের কেন্দ্রীয় নেতা জাহাঙ্গীর হাওলাদার, এস এম জাহিদুর রহমান প্রমুখ।