আগের ভাড়ায় বাস: সরকারের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় মালিকরা

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে অর্ধেক যাত্রী নেওয়ার শর্তে ৬০ শতাংশ বেশি ভাড়ায় চলছে গণপরিবহন। কিন্তু বেশিরভাগ গণপরিবহনগই ৬০ শতাংশ বেশি ভাড়া নিলেও অর্ধেক যাত্রীর শর্ত মানছে না। এই কারণে সাধারণ যাত্রী থেকে শুরু করে বিভিন্ন সংগঠন এই নিয়ম পরিবর্তবের দাবি জানিয়ে আসছে। তাদের দাবির ফলেই আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে আগের নিয়মে গণপরিবহন চলাচল করার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির নেতারা। তবে, ওই দিনই এই নিয়ম কার্যক্রম হবে কি না, এই সিদ্ধান্তের জন‌্য তারা সরকারের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছেন।

বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ)-সূত্রে জানা গেছে, এই সংক্রান্ত একটি সুপারিশ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। যেকোনো দিন আগের ভাড়ায় পরিবহন চলাচল করার নিয়ম কার্যকর করে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ বলেন, ‘গত বুধবার রাতে গণপরিবহন মালিকদের একটি জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল। বৈঠকে আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে সাধারণ ভাড়ায় গণপরিবহন চালানোর সিদ্ধান্ত হয়। আগের ভাড়ায় ফিরে যাওয়ার ব্যাপারে দীর্ঘ আলোচনা হয়েছে। যাত্রীদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে সরকারের সিদ্ধান্তের দিকে চেয়ে আছি। ’

বিআরটিএ-এর উপ-পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘কদিন আগে আমাদের বৈঠক হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরিবহন চলাচলের সিদ্ধান্ত নেবে মন্ত্রিপরিষদ। মন্ত্রিপরিষদ থেকে না বললে আমরা কোনো সিদ্ধান্ত দিতে পারি না। তাই, আমরা বলেছি, আপাতত বাড়তি ভাড়া অব্যাহত থাকবে। তবে যত সিট, তত যাত্রীর বিষয়ে আবেদন করেছে বাসমালিক পক্ষ। সেই আবেদন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠানো হবে। সেখান থেকেই মূলত সিদ্ধান্ত আসবে। ’

কবে নাগাদ আগের ভাড়া কার্যকর হবে—এমন প্রশ্নের জবাবে বিআরটিএ-এর উপ-পরিচালক বলেন, ‘এখন তো রাস্তায় বের হলেই দেখা যায়, আগের মতো কম যাত্রী নিয়ে পরিবহন চলাচল করতে পারছে না। অনেকেই স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। যাত্রীর চাপ বাড়ার কারণেই এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। তাই যাত্রী, মালিক ও শ্রমিক—সবাই চান আগের ভাড়ায় ফিরিয়ে নিতে।’ শিগগিরই সিদ্ধান্ত এসে যাবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: