রাজনীতিকরা জনগণের স্বার্থ রক্ষার অতন্দ্র প্রহরী: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘রাজনীতি মহান ব্রত, এটা কোনো পেশা নয়। সাধারণ জনগণ নিষ্ক্রিয় থাকলেও তাদের স্বার্থ রক্ষার জন্য রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের সক্রিয় থাকতে হয়। রাজনৈতিক নেতা-কর্মীরা জনগণের স্বার্থ রক্ষার অতন্দ্র প্রহরী।’

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে স্বেচ্ছাসেবক লীগ আয়োজিত ‘স্বেচ্ছাশ্রমে বাংলাদেশ: বঙ্গবন্ধুর চিন্তাভাবনা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি। ওবায়দুল কাদের তার সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

তিনি বলেন, ‘যারা বলে রাজনীতিতে শেষ কথা বলতে কিছু নেই, তারা জনকল্যাণের মূল মন্ত্র থেকে সরে গিয়ে লুটপাটের সংস্কৃতির বিস্তার ঘটায়। রাজনীতিকে নিজেদের স্বার্থ সিদ্ধির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে। সত্যিকারের নেতা-কর্মীরা লোভের বশবর্তী হয়ে রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হয় না। রাজনৈতিক সংস্কৃতি নষ্ট হলে কিংবা রাজনৈতিক নেতা-কর্মীরা লোভের চোরাবালিতে নিমজ্জিত হলে জনগণের স্বপ্ন ছিনতাই হয়ে যায়।’

বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবনের স্মৃতিচারণ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘প্রতিবাদকারী কিশোর থেকে রাজনৈতিক কর্মী, এরপর রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড ও আদর্শের অনুশীলনের মাধ্যমে রাজনৈতিক কর্মী থেকে নেতা। তারপর বাঙালির অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন-সংগ্রামের বোঝা নিজ স্কন্ধে বয়ে তিনি হয়ে ওঠেন রাজনীতিবিদ। বঙ্গবন্ধু বিশ্বের মহান নেতাদের অন্যতম একজন, একটি স্বাধীন-সার্বভৌম জাতি রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠাতা, বাঙালি জাতির পিতা।’

দুর্যোগ-দুর্বিপাকে এ দেশের মানুষের পাশে থেকে কাজ যাওয়া বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ঐতিহ্য, এ দাবি করে তিনি বলেন, ‘প্রতিষ্ঠার পর থেকে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ দুর্যোগে-দুর্ভোগে-দুর্বিপাকে, দুঃখ-বিষাদের দিনে এ দেশের মানুষের পাশে থেকে সর্বাত্মকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। করোনা সংকটের শুরু থেকেই সাধারণ মানুষের মাঝে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ ও সচেতনা সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রচার-প্রচারণা চালানো, কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দেওয়া, চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে ফ্রি অ‌্যাম্বুলেন্স সার্ভিস ও টেলিমেডিসিন সেবা কার্যক্রম পরিচালনা, অসহায় মানুষের মধ্যে খাদ্য বিতরণসহ জনকল্যাণমুখী অসংখ্য উদ্যোগ গ্রহণ করেছে স্বেচ্ছাসেবক লীগ। বর্তমানে বন্যাদুর্গতদের পাশে থেকে সারা দেশে কাজ করে যাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা-কর্মীরা।’

আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ বিগত দিনের মতো আগামীর দিনগুলোতেও জনকল্যাণমূলক কার্যক্রম অব্যাহত রাখবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য এ এস এম মাকসুদ কামাল, অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক এ কে এম আফজালুর রহমান বাবু, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি কামরুল হাসান রিপন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: