করোনায় ঝরে গেল আরও দুই চিকিৎসক

বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের অবসরপ্রাপ্ত সহযোগী অধ্যাপক ডা. আশরাফুজ্জামানের মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার সকাল ৮টায় কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার মৃত্যু হয়।

এছাড়া দিনাজপুর এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক পরিচালক ও বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) জেলা শাখার সাবেক সভাপতি ডা. শাহ মো. আবদুল আহাদও (৬৫) করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন।

তার বাড়ি চিরিরবন্দর উপজেলার আলোকদিহি ইউনিয়নের গোছাহার গ্রামে। তবে তিনি শহরের কালীতলায় সপরিবারে বসবাস করতেন।

বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন-বিএমএ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এমন তথ্য দিয়েছে। সংগঠনের দফতর সম্পাদক ডা. মোহাম্মদ শেখ শহীদ উল্লাহর পাঠানো ওই সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ডা. আশরাফুজ্জামানের বয়স হয়েছিল ৬১ বছর।

আর বিএমএ দিনাজপুর শাখার সাবেক সভাপতি ডা. শাহ আবদুল আহাদের বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর।

তিনি বলেন, এই দুই চিকিৎসকের মৃত্যুতে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন ও মহাসচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরী গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

বিএমএর তথ্য অনুযায়ী, এ পর্যন্ত দেশে চিকিৎসক, নার্সসহ তিন হাজার ২৩৫ জন স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হয়েছেন।

আক্রান্তদের মধ্যে চিকিৎসক আছেন এক হাজার ১৯ জন। ৩০ জন চিকিৎসক কোভিড-১৯ সংক্রমণ নিয়ে এবং পাঁচজন এ ভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: