ফুলবাড়ীতে সেফটিক ট্যাংকে নেমে ২ জনের মৃত্যু

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে নির্মাণাধীন সেফটিক ট্যাংকে নেমে নির্মাণশ্রমিকসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে।

আজ শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের গংগাহাট বাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার অনন্তপুর বালাবাড়ী গ্রামের আব্দুল আউয়ালের ছেলে নির্মাণশ্রমিক আল-আমিন (২৫) ও অপরজন স্থানীয় আজোয়াটারী গ্রামের সাহেব আলীর ছেলে সুজন মিয়া (২২)।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ফুলবাড়ী ডিগ্রী কলেজের সহকারী অধ্যাপক আব্দুল আউয়াল গংগারহাট বাজার সংলগ্ন নির্মাণাধীন কক্ষের ভিতর ২০ ফিট গভীর ল্যাট্রিনের সেফটিক ট্যাংক তৈরী করেন। ওই ট্যাংকের ভিতর নির্মাণসামগ্রী সরানোর জন্য শ্রমিক আল-আমিন ভিতরে প্রবেশ করে। এ সময় কোনোকিছু বুঝে উঠার আগেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন আল-আমিন। তাকে উদ্ধার করতে সুজন নামলে তিনিও জ্ঞান হারিয়ে পানিতে নিখোঁজ হন।

এ খবর দ্রুত ছড়িয়ে পরলে স্থানীয়রা ফুলবাড়ী থানা পুলিশ ও পার্শ্ববর্তী নাগেশ্বরী ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়। খবর পেয়ে নাগেশ্বরী ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে প্রায় আধাঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে অচেতন অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করেন। পরে পুলিশ ভ্যান ও অ্যাম্বুলেন্সযোগে দ্রুত ফুলবাড়ী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে জরুরি বিভাগের মেডিক্যাল অফিসার ডা: সাইফুল ইসলাম তাদেরকে মৃত ঘোষণা করেন।

নাগেশ্বরী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার ইমন মিয়া জানান, প্রায় আধা ঘন্টার অভিযানে ২০ ফুট গভীর সেফটিক ট্যাংক থেকে আমরা তাদেরকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছি।

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) নবিউল হাসান জানান, সেফটিক ট্যাংকে পড়ে মৃত দুই যুবকের ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: