Advertisements

সংসার ভাঙলো অপূর্বর, কাঠগড়ায় তিশা

করোনা মহামারীর মধ্যেই শোবিজ অঙ্গন থেকে এলো ভাঙ্গনের খবর। অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বর ৯ বছরের সংসার ভেঙ্গে গেছে। প্রাথামিকভাবে জানা গেছে, স্ত্রী নাজিরা হাসান অদিতির সাথে বনিবনা না হওয়ায় বেশ কিছুদিন ধরেই দুই জন আলাদা ছিলেন। রোববার সেই আলাদা থাকার বিষয়টি গণমাধ্যমের সামনে আনেন অদিতি। ফেসবুক পেইজে তিনি লিখেছেন, ‘আমাকে ‘ভাবী’ ডাকা বন্ধ করুন সবাই!’। এরপর তার ফেসবুকের রিলেশনশিপ স্ট্যাটাসে গিয়ে দেখা যায় ‘ডিভোর্স’ লেখা।

মোবাইলে অদিতির সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেছেন, আজ (রোববার) আমাদের ডিভোর্স কার্যকর হয়েছে। বেশ কিছুদিন আগেই আমি অপূর্বর বাসা থেকে চলে এসেছি। এ বিষয়ে আমাকে আর কিছু জিজ্ঞাস করবেন না। বিষয়টি নিয়ে অপূর্বর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া গেছে।

এদিকে অপূর্ব এবং অদিতির ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র বলেছেন, এই সংসার ভাঙ্গার নেপথ্যে রয়েছে জনপ্রিয় অভিনেত্রী তানজিন তিশার নাম। সাম্প্রতিক সময়ে নাটকে অপূর্ব-তিশা জুটি বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। এই সূত্রেই দুজনের মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক হয়ে যায়। ব্যাপারটি টের পেয়ে অদিতি অপূর্বকে নানা ভাবে বুঝানোর চেষ্টা করেছেন, নিষেধ করেছেন তিশার সাথে অভিনয় করতে। কিন্তু অপূর্ব তিশার সাথে সম্পর্ককে শুধুমাত্র বন্ধুত্ব বলে বুঝানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছেন। এক পর্যায়ে চলতি বছরের শুরুতে অপূর্বর বাড়ি ছেড়ে চলে যান অদিতি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে অপূর্ব তার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন।

সূত্রটি জানিয়েছে, অদিতির সাথে দূরত্ব সৃষ্টি হওয়ার পর তিশার সাথে যোগাযোগ বাড়িয়েছেন অপূর্ব। এ বিষয়ে কথা বলতে তিশার সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এর আগে ২০১০ সালের ১৯ আগস্ট অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাকে বিয়ে করেছিলেন অপূর্ব। যদিও এর পরের বছরের ফেব্রুয়ারিতেই ডিভোর্স হয়ে যায় তাদের। ওই বছরের ১৪ জুলাই অপূর্ব পারিবারিকভাবে নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন। অপূর্ব-অদিতির দাম্পত্যজীবনে আয়াশ নামে এক পুত্র সন্তান রয়েছে।

Advertisements

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: