Sunday April11,2021

An Images

করোনা সংক্রমণ নিয়ে বেনজির সংঘাতের পথে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)। ট্রাম্পের ‘চিন কেন্দ্রিক’ কটাক্ষের পালটা দিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সাফ বলেছে, করোনা নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট যেন রাজনীতি করা থেকে বিরত থাকেন।

বিশ্বজুড়ে মহামারির মধ্যে তুঙ্গে পৌঁছেছে চিন ও আমেরিকার টক্কর। ইতিমধ্যেই মৃত্যুর সংখ্যায় চিনকে ছাপিয়ে গিয়েছে আমেরিকা। আর চিনের সঙ্গে মার্কিন মুলুকের কূটনৈতিক টানাপোড়েন চলছেই। এর আগে একাধিকবার ট্রাম্প অভিযোগ করেছেন, করোনার প্রকোপ সংক্রান্ত তথ্য গোপন করছে চিন। ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিযোগ, করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের যে সংখ্যা দেখাচ্ছে চিন, তাতে গলদ আছে। আসল তথ্য চেপে গোটা বিশ্বকে ধোঁকা দিচ্ছে তারা। নিজেদের দেশে ভাইরাস আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা লঘু করে দেখানোর চেষ্টা করছে চিন। সংক্রমণ থেমে যাওয়ার যে দাবি তারা করেছে সেটাও সত্যি নয়। চিনের সঙ্গে মিলে গিয়েছে WHO-ও। চিনের অনৈতিক কাজে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মদত আছে বলে মনে করছেন তিনি। এমনকি সংস্থাটির আর্থিক অনুদান বন্ধ করার হুমকিও দিয়েছেন ট্রাম্প।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের বেনজির আক্রমণের পরই রুখে দাঁড়িয়েছে WHO। সংস্থাটির প্রথম আফ্রিকান প্রধান টেডরোজ আধানম কড়া ভাষায় ট্রাম্পকে আক্রমণ করে বলেছেন, “করোনা নিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা তোলার প্রয়োজন নেই। রাজনীতির ময়দানে দাঁও হাঁকড়ানোর অন্য অনেক পথ আছে। আপনি যদি আরও কফিন দেখতে না চান তাহলে এই মহামারি নিয়ে রাজনীতি বন্ধ করুন।” এদিকে, ট্রাম্পকে তুলোধোনা করলেও করোনা মোকাবিলায় গাফিলতির অভিযোগে নিকে খানিকটা ব্যাকফুটে গিয়ে টেডরোজ বলেন, “WHO-এর কর্মীরাও মানুষ। আর মানুষ মাত্রই কিছু ভুলচুক হতেই পারে। তবে এখন আমরা মানুষের জীবন বাঁচানো নিয়ে লড়াই করছি। এই বিশ্বে আমি একটি ক্ষুদ্র কণিকা মাত্র। আমাকে কেউ নিশান করলেও, তা নিয়ে আমি ভাবিত নই।” সব মিলিয়ে, এই বিপর্যয়ের মধ্যে যে সংঘাতের দিকে দ্রুত এগোচ্ছে আমেরিকা  ও WHO তা স্পষ্ট।

শুদ্ধস্বর/আইপি