Sunday April18,2021

স্বাধীনতার ৪৮ বছর পার হলেও এখনো নারীদের প্রতি সহিংসতা কমছে নাঃডক্টর ইফতেখারুজ্জামান

 

আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা অন্যায়ের পক্ষে জড়িয়ে পড়ছে। নারী ও শিশু নির্যাতনের মতো এসব ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে পড়ার কোনো ন্যায়বিচার আসেনি। আমরা নুসরাতের ঘটনায় ন্যায়বিচার নিয়ে শঙ্কিত বলে মন্তব্য করেছেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান।

রোববার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) চত্বরে টিআইবি আয়োজিত ‘নুসরাত হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে’আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, স্বাধীন দেশে নারী, শিশু নির্যাতনের বিচার দাবি যে পুরণ হবে তাতে আমাদের আস্থা নেই। একই সাথে নুসরাত জাহান রাফি হত্যাকাণ্ড এবং এ ঘটনার ন্যায়বিচার সরকারের জন্য একটি অ্যাসিড টেস্ট।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার ৪৮ বছর পার হলেও এখনো নারীদের প্রতি সহিংসতা কমছে না। একের পর এক এ ধরনের ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটেই চলেছে। একটি ন্যায়বিচারও জনগণ দেখতে পায়নি। তবে এবার নুসরাতের এ ঘটনা সরকারের জন্য অ্যাসিড টেস্ট (অগ্নি পরীক্ষা)। এ ঘটনায় ন্যায়বিচার প্রক্রিয়ার মাধ্যমে একটা দৃষ্টান্ত স্থাপনের সুযোগ রয়েছে। এর মাধ্যমে সরকারের প্রতি জনগণের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনের সুযোগ তৈরি হবে।

ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, এ হত্যাকাণ্ডের ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সরকারের প্রতি জনগণের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনের সু্যোগ রয়েছে।
নুসরাত হত্যাকাণ্ডে রাজনৈতিক, প্রশাসন, স্থানীয় অন্যান্য সিন্ডিকেট জড়িত বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, এই ঘটনায় শুধু প্রত্যক্ষদের বিচার করলে হবে না, পরোক্ষভাবে যারা ছিলেন, তাদেরও বিচারের আওতায় আনতে হবে। এ ঘটনা একটি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ঘটেছে যারা পরোক্ষভাবে জড়িত ছিলো। সংশ্লিষ্ট মাদ্রাসার কমিটি, শিক্ষক এবং স্থানীয় রাজনৈতিক নেতারা জড়িত আছেন। তাদেরকেও বিচারের আওতায় আনতে হবে বলে জানান তিনি।

শুদ্ধস্বর/আইপি