Wednesday April14,2021

আফসোস ও দুঃখের বিষয় হল যে তাজউদ্দিন সরকারকে কখনো সে মর্যাদা দেয়া হয়নিঃ বাংলাদেশ জাসদ

মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে  বাংলাদেশ জাসদ আজ আলোচনা সভার আয়োজন করে

আজকের আলোচনা সভায় অতিথি বক্তা ছিলেন আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য, মাননীয় কৃষি মন্ত্রী ডঃ আব্দুর রাজ্জাক, ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এম পি। বাংলাদেশ জাসদ সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় বিশিষ্ট সাংসদ মঈনুদ্দিন খান বাদল এমপি ও দলীয় নেতারাও বক্তৃতা করেন।

দলীয় নেতারা বলেন, মুজিবনগর দিবস কে মুজিবনগর সরকার দিবস বলা উচিত, এবং এই দিনকে জাতীয় দিবসের মর্যাদা দিয়ে পালন করা উচিত। তাজউদ্দীন -সৈয়দ নজরুল এর নেতৃত্বে গঠিত সরকার আমাদের যুদ্ধের গনতান্ত্রিক ন্যায্যতা দিয়েছে। “স্বাধীনতার ঘোষনা পত্র” ছিল এক অনন্য দলিল। ২৬ মার্চ স্বাধীনতা ঘোষণার পর এই দিনটি ছিল সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ দিন। বংগবন্ধুর অবর্তমানে যুদ্ধ পরিচালনায় তারা যে প্রজ্ঞা, দক্ষতা ও দুরদর্শিতার পরিচয় দিয়েছে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে তা স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে । তারা ছিল স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম সরকার। তারা বংগবন্ধুর প্রতি বিশবস্থ ছিলো এবং আত্মমর্যাদায় উজ্জ্বল সফল সরকার ছিল। আফসোস ও দুঃখের বিষয় হল যে তাজউদ্দিন সরকারকে কখনো সে মর্যাদা দেয়া হয়নি।
দলীয় নেতারা বলেন, মুক্তিযুদ্ধে সকলের অবদানের যথাযথ সীকৃতি দিতে হবে, অন্যথায় অনেক খেসারত দিতে হবে। মুক্তিযুদ্ধকে মুখে জনযুদ্ধ বলা হলেও বাস্তবে তা মেনে নেয়া হয় নি। ত্রুটি গুলো গভীর পর্যালোচনার দাবি রাখে।
সভার শুরুতে বংগবন্ধু, জাতীয় চার নেতা এবং তিরিশ লক্ষ শহীদ দের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।