Wednesday April14,2021

গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমে দলের চেয়ারপারসন কারাবন্দী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে বললেন বিএনপি মহাসচিব মীর্জা ফখরুল

শিগগিরই ঐক্যবদ্ধভাবে গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমে দলের চেয়ারপারসন কারাবন্দী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। মঙ্গলবার বিকেলে এক দোয়া মাহফিল শুরুর আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় কেন্দ্রীয়ভাবে এই দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে বিএনপি। নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় বাদ আসর মিলাদ মাহফিল হয়। এতে বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনা ও জিয়া পরিবারের জন্য বিশেষভাবে মুনাজাত করা হয়। দোয়া মাহফিলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সহ বিভিন্ন পর্যায়ের শতাধিক নেতাকর্মী দোয়া মাহফিলে অংশগ্রহণ করেন।

সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, চরম অসুস্থতার মধ্যে খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাকে সম্পূর্ণ মিথ্যা মামলায় অন্যায়ভাবে কারাবন্দী করা হয়েছে। খালেদা জিয়া ঠিকমতো খেতে পারেননা। হাটতে পারেননা। কারাগারে তাকে সুচিকিৎসা দেয়া হয়নি। তার প্রতিটি পরীক্ষায় শরীরের জন্য হুমকিস্বরূপ। খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনতে হবে। ফ্যাসীবাদী সরকারকে হটাতে হলে গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে জোরদার করতে হবে। আল্লাহ যেন আমাদের নেত্রীর রোগমুক্তি করে আমাদের মাঝে ফিরিয়ে দেন।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে কারাগারে বন্দী করা হয়েছে। তাকে সেখানে সুবিধামতো চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়নি। আমরা কেন্দ্রীয়ভাবে তার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল করছি। একই উদ্দেশ্যে আগামীকাল সারাদেশে বিএনপির উদ্যোগে দোয়া মাহফিল হবে। সেইসাথে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে আগামী রোববার সকাল ১০ টা হতে বিকেল চারটা পর্যন্ত ঢাকায় অনশন কর্মসূচি পালন করা হবে বলে তিনি ঘোষণা দেন।