Sunday April18,2021

বঙ্গবন্ধু বাকশাল গঠনের মাধ্যমে জাতীয় ঐক্য গড়ে অর্থনৈতিক উন্নয়নের সূচনা করে ছিলেন: প্রধানমন্ত্রী

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পরই দেশের নির্বাচন ব্যবস্থায় অর্থ ও পেশিশক্তির ব্যবহার শুরু হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ সোমবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এবার স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্তদের মধ্যে পদক বিতরণ অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশ কৃষক, শ্রমিক আওয়ামী লীগ (বাকশাল) গঠনের মাধ্যমে জাতীয় ঐক্য গড়ে অর্থনৈতিক উন্নয়নের সূচনা করেছিলেন। ১৯৭৩ সালে প্রথম নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ৯টি বাদে সব আসন পেয়েছিল। তারপরও যেসব দল সংসদে আসন জেতেনি তাদেরকেও তিনি জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ায় এনেছিলেন। অথচ তার বিরুদ্ধে ব্যাপক অপপ্রচার চালানো হয়েছিল।

তিনি বলেন, জাতির পিতা দেখলেন একটা নির্বাচনে ব্যাপক খরচ। তাই রাষ্ট্রীয় খরচে একই পোস্টারে সকল প্রার্থীর জন্য নির্বাচনী ব্যবস্থা করেছিলেন জাতির পিতা। এর মাধ্যমে ভোটেনর ক্ষেত্রে সবাইকে স্বাধীন মত প্রকাশের অধিকার তিনি সৃষ্টি করে দিয়েছিলেন। অথচ পঁচাত্তরের পরের সকল নির্বাচনে অর্থ, লাঠি এগুলোর আধিপত্য ছিল। পচাত্তরের পর বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিনিয়ত বোমাবাজি, খুনখারাবি, লাশ পড়েছে। সশস্ত্র বাহিনীতে ১৯টা ক্যু হয়েছে। যেখানে হাজার হাজার অফিসার নিহত হয়েছে। জাতির পিতার যে পদ্ধতি নিয়েছিলেন পদ্ধতিতে দুটি নির্বাচন হয়েছিল। সেখানে আমাদের ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলামের ভাইকে হারিয়ে একজন স্কুল মাস্টার জয়ী হয়েছিলেন। পটুয়াখালী ও কিশোরগঞ্জের দুটি নির্বাচনে সাধারণ কৃষক-শ্রমিকের নির্বাচিত প্রতিনিধিরা বিজয়ী হয়েছিলেন।