Sunday April18,2021

কোনো প্রকার ঐকমত্য ছাড়াই শেষ হলো মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের মধ্যকার দ্বিতীয় শীর্ষ সম্মেলন।

উত্তর কোরিয়ার ওপর আমেরিকার আরোপ করা নিষেধাজ্ঞা তুলের নেওয়ার শর্ত দেওয়াতেই মূলত শেষ হয় দুই নেতার বৈঠক।

এর আগে বুধবার রাতে ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ের একটি পাঁচ তারকা হোটেলে নৈশভোজের মধ্য দিয়ে শুরু হয় আলোচনা। সেই সময় দুই নেতাকে বেশ হাসি-খুশির সঙ্গে করমর্দন করতে দেখা যায়।

বিবিসি বলছে, বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, ‘তারা (পিয়ংইয়ং) চায়, আরোপিত নিষেধাজ্ঞা পুরোপুরি তুলে নেওয়া হোক, কিন্তু সেটা আমরা করতে পারি না।’

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘মাঝে মাঝে কিছু বিষয় থেকে বেরিয়ে যেতে হয়, আর সেটাই এখন হলো।’

তৃতীয় কোনো শীর্ষ বৈঠকের ব্যাপারে পরিকল্পনা হয়নি বলেও জানান ট্রাম্প।

দ্বিতীয় শীর্ষ সম্মেলনের আগে উভয় নেতাই ইতিবাচক ফলাফলের ব্যাপারে আশ্বাস দিয়েছিলেন। আশা করা হচ্ছিল, বৈঠক শেষে দুই নেতা বিশ্বকে আশাব্যাঞ্জক খবর দেবেন। কিন্তু তা আর হলো না।

বিশেষ করে ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার ব্যাপারে বেশ আশাবাদী ছিলেন। আর সেজন্য কয়েক দিন আগে তিনি বলেন, উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচি পরিত্যাগে তিনি দেশটিকে চাপ দেবেন না।

গতকাল তিনি বলেন, ভিয়েতনাম অনেক সমৃদ্ধশালী হয়েছে। এ রকম উত্তর কোরিয়ারও হওয়া সম্ভব যদি তারা পরমাণু কর্মসূচি পরিত্যাগ করে।

অন্যদিকে, কিম জং উন বলেন, তিনি অত্যন্ত আশবাদী যে, বৈঠক থেকে ভাল কিছু বেরিয়ে আসবে। আর সেজন্য তিনি সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন বলেও জানান।

উল্লেখ্য, দীর্ঘ দিনের বাক-যুদ্ধ আর হম্বি-তম্বির পর গত বছরের ১২ জুন সিঙ্গাপুরে ঐতিহাসিক বৈঠকে মিলিত হন ট্রাম্প ও কিম। ওই বৈঠকে কোরীয় উপদ্বীপকে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করার একমত হন তারা।

কিন্তু বৈঠকের পর থেকে দ্বিতীয় বৈঠক পর্যন্ত সে ধরনের কোনো অগ্রগতি চোখে পড়েনি। তার মধ্যেই গতকাল দ্বিতীয় বৈঠক শুরু হয়। আর সেটাও ব্যর্থ হয়ে গেল।