Thursday March4,2021

রাজধানীসহ সারাদেশে বিএনপির নেতাকর্মী ও দলটির আইনজীবীদের বিরুদ্ধে ‘গায়েবী’ ও ‘কাল্পনিক’ মামলা নিয়ে করা রিট আবেদনের শুনানি শুরু হয়েছে।

বিচারপতি মইনুল হোসেন ও বিচারপতি আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে আজ এ শুনানি শুরু হয়। শুনানিকালে বেশকিছু মামলার এজাহার পর্যবেক্ষন করে আদালত বলেন, এ ধরনের মামলায় পুলিশের ইমেজ ও বিশ্বাসযোগ্যতা নষ্ট হচ্ছে। সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের প্রসঙ্গে বিষ্ময় প্রকাশ করে আদালত বলেন, খন্দকার মাহবুব হোসেন বারের সিনিয়র আইনজীবী। তিনিও ককটেল মেরেছেন? এটা হাস্যকর।

এর আগে রিটের শুনানিতে অংশ নেন সিনিয়র আইনজীবী ড. কামাল হোসেন। তিনি বলেন, যেসব গায়েবি মামলা হয়েছে সেগুলোর অভিযোগ সব একই। একই স্থানে একাধিক ঘটনার কথা বলা হয়েছে।

১০ বছর আগে মৃত্যুবরণ করা ব্যক্তিও না-কি পুলিশকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে ককটেল মেরেছেন। শুনানি শেষে আদালতের কাছে রুল চান ড. কামাল হোসেন। অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম শুনানির জন্য সময় চাইলে আদালত মঙ্গলবার তাঁকে শুনানি করতে বলেন। পাশাপাশি তাঁকে উদ্দেশ্য করে আদালত বলেন, আপনি যদি নির্দেশনা দিতেন তাহলে এ ধরনের মামলা হত না। এতে পুলিশের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে।

রিটের পক্ষে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, মওদুদ আহমদসহ আইনজীবী সুব্রত চৌধুরী, মাহবুব উদ্দিন খোকন, সারা হোসেন, কায়সার কামাল, একেএম এহসানুর রহমান, মাসুদ রানা প্রমুখ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আজ অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করবেন। এর আগে গত ২৩শে সেপ্টেম্বর এই রিট আবেদন করেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, নিতাই রায় চৌধুরী ও দলটির আইন বিষয়ক সম্পাদক সানাউল্লা মিয়া। সুত্র : মানবজমিন