Saturday February27,2021

বহু বিকেলের পর

আমি আজ কন্যা সুন্দর রোদ্দুর দেখেছি

সেই রোদ্দুর আমাকে ডেকে বলে,

আমি নৈঃশব্দবতী হতে চাই।

অবেলার রোদ্দুরে থমকে দাঁড়ায় পৃথিবী

পাখিরা ভুলে যায় দিক

চারপাশ আমাকে ডেকে বলে,

আমি নৈঃশব্দবতী হতে চাই।

বর্ষার আকাশ আলো করে ওঠে পূর্নিমার চাঁদ,

সেই চাঁদের আলো আমার জানালা বয়ে এসে বলে,

আমি নৈঃশব্দবতী হতে চাই।

ঝুম বৃষ্টির ফোঁটাগুলো হইচই করে কানের পাশে,

ওরা সমস্বরে বলে,

আমরা নৈঃশব্দবতী হতে চাই।

পাহাড়,নদী,সমুদ্র আর গহীন অরন্য

আমায় বারবার আহবান করে,

তারা নৈঃশব্দবতী হতে চায়।

কৈলাস থেকে বৈকুন্ঠ

স্বর্গলোক থেকে ব্রহ্মলোক-

কলরব ওঠে সর্বত্র,

আমরা নৈঃশব্দবতী হতে চাই।

দখিনা হাওয়া বয়ে আনে বিষন্নতা আমার কাছে,

আমি সবার আহবান ফিরিয়ে দিয়ে বলি,

নৈঃশব্দবতীর পুনর্জন্ম সম্ভব নয়…

হৃদয়ের গভীরে সমাধিস্থ করে রেখেছি তাকে,

আমি ক্ষমা চাই।

আবার গর্জে ওঠে আমার চারদিক,

সমবেত কন্ঠে সমস্বরে বলে ওঠে সবাই,

আমরা নৈঃশব্দবতী হতে চাই.