Friday March5,2021

শুদ্ধস্বর রিপোর্টঃ- নারায়ণগঞ্জ শহরে হকার ইস্যুকে কেন্দ্র করে সিটি মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী ও এমপি শামীম ওসমান সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। ঘণ্টাব্যাপী বৃষ্টির মতো ইটপাটকেল, গুলি বর্ষণ এবং দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় রণক্ষেত্রে পরিণত হয় শহরের চাষাঢ়া এলাকা। শামীম ওসমান সমর্থকদের হামলায় মেয়র আইভী আহত হয়ে রাস্তায় বসে পড়েন। এ সময় তার সমর্থকরা মানবঢাল তৈরি করে চারপাশ থেকে তাকে ঘিরে রাখে। বৃষ্টির মতো ইটপাটকেল ও গুলিবর্ষণ হলেও আইভী রাস্তা ছেড়ে যাননি। এ সময় কয়েকজন সাংবাদিকসহ উভয় পক্ষের শতাধিক আহত হয়েছেন।
সংঘর্ষ চলাকালে বিপুল সংখ্যক পুলিশ উপস্থিতি থাকলেও সংঘর্ষ থামাতে তারা ব্যর্থ হন। সংঘর্ষের সময় শহরের দোকান পাট, বিপণি বিতান বন্ধ হয়ে যায়। আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে পুরো শহরে। বন্ধ হয়ে যায় সকল যানবাহন চলাচল। মঙ্গলবার বিকালে এ ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষের পর বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও র‌্যাব শহরে জলকামানসহ টহল দেয় ও গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অবস্থান নেয়। দীর্ঘদিন থেকে এই দুই নেতা মুখোমুখি অবস্থানে ছিলেন বক্তব্য বিবৃতির মাধ্যমে। গতকালের সংঘর্ষের ঘটনায় তাদের বিরোধ মাঠে গড়িয়েছে। পুরো শহরে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। চরম উত্তেজনা রয়েছে উভয় শিবিরে।
এদিকে হামলার জন্য নাসিক মেয়র এমপি শামীম ওসমানকে সরাসির দায়ী করে বলেন, তাকে হত্যার উদ্দেশেই শামীম ওসমানের নির্দেশে তার ক্যাডার বাহিনী হামলা চালিয়েছে। তিনি বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে জানাবেন। প্রশাসনের নীরব ভূমিকার কারণে ডিসি ও এসপির প্রত্যাহার দাবি করেছেন তিনি।
অপরদিকে শামীম ওসমান বলেন, আমি দেখেছি বিএনপির মার্ডার কেসের আসামি ও আসামির ভাইয়েরা সব আজকে নারায়ণগঞ্জে মেয়রের মিছিলে সমাবেশ করে নারায়ণগঞ্জকে অশান্ত করার চেষ্টা করছে।

শুদ্ধস্বর/এন.হাসান